রাজ্য

ফের ‘দুয়ারে সরকার’ প্রকল্পে এগিয়ে এল গেরুয়া শিবির, ‘মানুষই তো সাহায্য পাচ্ছে’, দাবী বিজেপির

দুয়ারে সরকার প্রকল্পকে যমের দুয়ারে সরকার বলে কটাক্ষও করেছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তবে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার বিজেপি নেতৃত্ব বলেছেন, “এ তো সরকারের ভালো উদ্যোগ। সবাই সুবিধা পাক”। এই কারণেই সাধারণ মানুষের স্বার্থে দুয়ারে সরকার কর্মসূচিতে এগিয়ে এল গেরুয়া শিবির।

আজ, শুক্রবার পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার কেশিয়াড়ি ব্লকের খাজরা গ্রামে এমনই চিত্র ধরা পড়ল। এদিন এই কর্মসূচিতে এলাকার মানুষের ফর্ম ফিলাপ করতে দেখা গেল বিজেপি নেতৃত্ব থেকে কর্মীদের।

আরও পড়ুন- মুখোমুখি দুই ‘ঘরের মেয়ে’! শেষ হাসি হাসবে কে? উপনির্বাচনের তাপে ভবানীপুর সরগরম

আজ, শুক্রবার কেশিয়াড়ির খাজরা সতীশচন্দ্র মেমোরিয়াল হাইস্কুলে দুয়ারে সরকারের এই শিবির বসেছিল। সেখানেই খাজরা পঞ্চায়েতের আমগেড়িয়া এলাকার বিজেপি নেতা কালাচাঁদ মাহালাকে দেখা যায় বেঞ্চে বসে অনেকের ফর্ম পূরণ করতে। তাঁর সঙ্গে ছিলেন কয়েকজন কর্মী সমর্থক। এদিন কালাচাঁদবাবু স্বাস্থ্যসাথী থেকে শুরু করে কৃষক বন্ধু, লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের ফর্ম পূরণ করেন। তিনি বলেন, “মানুষকে পরিষেবা দিতেই এই কাজ। আমাদের দল বিরোধিতা করলেও আমি চাই, এলাকার মানুষ সরকারি সুবিধা পাক”

এদিকে এসব দেখে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বের বক্তব্য, “মুখ্যমন্ত্রীর চিন্তাধারা সাধারণ মানুষের জন্য যে ঠিক সেটাই মানছেন এলাকার বিজেপি নেতৃত্ব। বারবার রাজ্যের বিভিন্ন প্রকল্পের বিরোধিতা করলেও সাধারণ মানুষের যে অভূতপূর্ব সাড়া দিচ্ছেন, তা দেখে বিজেপি-ও মানতে বাধ্য সমস্ত কর্মসূচিই জনমুখী”। অন্যদিকে সাধারণ মানুষের কথায়, “সবাই তো ফর্ম পূরণ করতে পারে না। যদি কেউ রাজনৈতিক ভেদাভেদ ভুলে সাহায্য করেন, তাহলে তো ভালই”।

এটাই প্রথম নয়, এর আগেও পূর্ব মেদিনীপুরের তমলুক ও উত্তর ২৪ পরগণার বনগাঁয় দুয়ারে সরকার প্রকল্পে সাধারণ মানুষকে সাহায্য করতে দেখা গিয়েছিল বিজেপির তরফে। তাদের মতে, এটা কোনও রাজনৈতিক প্রকল্প নয়। এটা সরকারি প্রকল্প আর তা যাতে সকলের কাছে পৌঁছতে পারে এই কারণেই তারা সাহায্য করছেন।

আরও পড়ুন- টেট নিয়ে ফের কলকাতা হাইকোর্টের তোপের মুখে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ, সভাপতিকে সশরীরে হাজিরার নির্দেশ

কিছুদিন আগে আবার তমলুকের এক বিজেপি কাউন্সিলর ক্যাম্পের আয়োজন করে জানান যে দুয়ারে সরকার কর্মসূচিতে দুর্নীতির অভিযোগ আসছে। এই কারণে মানুষকে সাহায্য করতেই এই উদ্যোগ নিয়েছেন তিনি।

Related Articles

Back to top button