রাজ্য

‘প্রকল্পের টাকা পাওয়ার জন্য দেবের সাংসদ তহবিলে ৩০ শতাংশ কাটমানি দিতে হয়’, ফের দেবকে আক্রমণ হিরণের

ফের একবার ঘাটালের তৃণমূল সাংসদ দেবকে (Dev Adhikari) আক্রমণ করলেন খড়গপুরের বিজেপি বিধায়ক হিরণ চট্টোপাধ্যায় (Hiran Chatterjee)। হিরণের অভিযোগ, কোনও প্রকল্পের টাকা পেতে হলে দেবের সাংসদ তহবিলে ৩০ শতাংশ কমিশন (cut money) দিতে হয় আবেদনকারীকে। হিরণের কথায়, ঘাটালের এক বরিষ্ঠ তৃণমূল (TMC) নেতাই তাঁকে একথা বলেছেন।

সম্প্রতি এমনই অভিযোগ তুলেছেন হিরণ সাংসদ দেবের বিরুদ্ধে। এই নিয়ে বেশ শোরগোল পড়ে গিয়েছে রাজ্য-রাজনীতিতে। দেবের বিরুদ্ধে তোলা হিরণের এই অভিযোগ প্রসঙ্গে ঘাটালের বিজেপি বিধায়ক শীতল কপাট বলেন, “হিরণদার কাছে নিশ্চয়ই উপযুক্ত প্রমাণপত্র রয়েছে। তা না হলে তিনি বলবেন কেন? এর আগে হিরণদা দেবের বিরুদ্ধে গরুচোর এনামুলের কাছ থেকে কাটমানি নেওয়ার অভিযোগ এনেছিলেন। তার তো প্রমাণ রয়েছে। এনামুলের অ‌্যাকাউন্ট থেকে দেবের অ‌্যাকাউন্টে যে পাঁচ কোটি টাকা ট্রান্সফার হয়েছে তার প্রমাণ রয়েছে। এক্ষেত্রেও নিশ্চয়ই প্রমাণ রয়েছে হিরণদার কাছে। আমরা বলতে পারি, সাংসদ দেব সাধুপুরুষ নন”।

বলে রাখি, কালীপুজোর সময় ঘাটালের এক অনুষ্ঠানে গিয়ে দেবকে তুমুল কটাক্ষ করেছিলেন বিজেপি বিধায়ক হিরণ চট্টোপাধ্যায়। বলেছিলেন, “বন‌্যার সময় ঘাটালের মানুষ যখন হাবুডুবু খায় তখন ঘাটালের সাংসদ দেব তাঁর গার্লফ্রেন্ড নিয়ে মালদ্বীপে ছুটি কাটায়। ঘাটালের মানুষের সমস‌্যা নিয়ে দেবের ভাবার সময় কোথায়? ২০১৪ সাল থেকে দেব ঘাটালের সাংসদ। সংসদে তাঁর উপস্থিতি ২০ শতাংশের নিচে”।

এহেন মন্তব্যের পর হিরণের এই মন্তব্যের পাল্টা জবাব দিয়েছিলেন দেবও। কিন্তু এবার এক বিস্ফোরক অভিযোগ আনলেন হিরণ। দেবের সাংসদ তহবিল থেকে প্রকল্পের জন্য টাকা পেতে হলে ৩০ শতাংশ কমিশন দিতে হয় বলে দাবী তুললেন বিজেপি বিধায়ক। তাঁর আরও দাবী, একথা ঘাটালেরই এক তৃণমূল নেতা তাঁকে বলেছেন,

উল্লেখ্য, ২০১৪ সাল থেকে দেব ঘাটালের সাংসদ। ২০১৪ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত দেবের সাংসদ প্রতিনিধি ছিলেন ডেবরার তৃণমূল নেতা অলোক আচার্য। ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনে ফের জিতে ঘাটালের সাংসদ হন দেব। এরপর অলোক আচার্যকে সরিয়ে দেওয়া হয়। ২০১৯ থেকে দেবের সাংসদ প্রতিনিধি হয়েছেন ঘাটালের তৃণমূল নেতা রামপদ মান্না।

হিরণের তোলা নিয়ে দেবের বর্তমান সাংসদ প্রতিনিধি রামপদ মান্না বলেন, “২০১৪ থেকে ২০১৯ কী হয়েছে আমি জানি না। ২০১৯-এর পর থেকে কারও সাহস নেই কোনও কাজ পেতে কমিশন নেওয়ার অভিযোগ তোলার। কারও কাছ থেকে একটি টাকাও দাবি করা হয়নি, নেওয়াও হয়নি। চ‌্যালেঞ্জ করছি”। এই বিষয়ে দেবের কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি এখনও পর্যন্ত।

Related Articles

Back to top button