রাজ্য

‘তৃণমূলের থেকে অনেক কিছু শেখার আছে, অপরিণত রাজ্য নেতাদের জন্যই উপনির্বাচনে এই ফল’, উপনির্বাচনে বিজেপির ভরাডুবির পর বিস্ফোরক সৌমিত্র খাঁ

আসানসোল ও বালিগঞ্জ, দুই কেন্দ্রের উপনির্বাচনেই হারের মুখ দেখেছে বিজেপি।, বিজেপির এই খারাপ ফলের জন্য এবার বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন বিষ্ণুপুরের সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। তাঁর কথায়, “অপরিণত রাজ্য নেতাদের নেতৃত্বে ভাল ফল আশা করা যায় না। অপরিণত নেতাদের জন্যই উপনির্বাচনে এই ফল হয়েছে”।

ক্ষমতায় আসার পর থেকে এই প্রথমবার আসানসোল লোকসভা তৃণমূলের দখলে গেল। ফের একটা লোকসভা আসন হাতছাড়া হল বিজেপির। আসানসোল লোকসভা উপনির্বাচনে জয়ী হয়েছেন তৃণমূল প্রার্থী শত্রুঘ্ন সিনহা। প্রায় তিন লক্ষেরও বেশি ভোটের ব্যবধানে জিতেছেন তিনি।

অন্যদিকে, বালিগঞ্জ বিধানসভা উপনির্বাচনেও জয়ী হয়েছেন এককালের আসানসোলের সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়। ২০ হাজারের বেশি ভোটের ব্যবধানে জিতেছেন তিনি। বালিগঞ্জে জামানত জব্দ হয়েছে গেরুয়া শিবির। তৃতীয় স্থানে নেমে গিয়েছে তারা। এই কেন্দ্র থেকে জোর লড়াই দিয়েছে বামেরা।

আর দলের এই ফলাফলের জন্য দলের রাজ্য নেতৃত্বকেই নিশানা করেছেন সৌমিত্র খাঁ। ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, “তৃণমূলের থেকে অনেক কিছু শেখার আছে। তৃণমূলের বিরুদ্ধে লড়াই করতে আমরা ব্যর্থ হয়েছি। রাজ্য ও কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের বিষয়টি ভাবা উচিত। যাদের বহিষ্কার করা হয়েছিল তাঁদের ফেরানোর কথা ভাবা উচিত”।

বলে রাখি, বালিগঞ্জে ২০ হাজার ২২৮ ভোটে জিতেছেন তৃণমূল প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয়। বালিগঞ্জে তাঁর প্রাপ্ত ভোট ৫১ হাজার ১৯৯। সিপিএম প্রার্থী সায়রা শাহ হালিম পেয়েছেন ৩০ হাজার ৯৭১ ভোট। জমানত জব্দ হয়েছে বিজেপি ও কংগ্রেস। বিজেপি প্রার্থী কেয়া ঘোষ পেয়েছেন ১৩ হাজার ২২০ ভোট ও কংগ্রেস প্রার্থী কামরুজ্জামান চৌধুরী পেয়েছেন ৫ হাজার ২১৮ ভোট।a

Related Articles

Back to top button