রাজ্য

‘ভাতা চাই, ভাতা দেও’ স্লোগান তুলে শাসকের পুরোহিত ভাতায় দুর্নীতির বিরুদ্ধে বিক্ষোভ বিজেপির যুব মোর্চার!

আর্থিক দুর্নীতিতে জর্জরিত তৃণমূল। আমফানে ব্যাপক আর্থিক নয়ছয়ের অভিযোগ উঠেছিল তৃনমূলের নেতা-নেত্রীদের বিরুদ্ধে। সরব হয়েছিল রাজ্যের প্রায় সমস্ত বিরোধী দল গুলিই কিন্তু এত কিছুতেও দুর্নীতির অভ্যাস সেই থেকেই গেল।

সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamta Banerjee) আসন্ন ২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচনের কথা মাথায় রেখে পদ্মশিবিরের (Bharatiya Janata Party) হিন্দু ভোট বাঙ্কে একপ্রকার ভাঙন ধরাতে রাজ্যে ইমামদের সঙ্গে পুরোহিতদেরও ভাতা দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন। তিনি জানিয়েছিলেন, বাংলার ৮ হাজার পুরোহিতদের মাস গেলে ১ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে। আর এবার মুখ্যমন্ত্রীর এহেন ঘোষণার পর পুরোহিতদের তালিকা প্রকাশ হতেই দুর্নীতি আর স্বজনপোষণের অভিযোগ উঠেছে।

আর এবার শাসক দলেরই দুর্নীতির বিরুদ্ধে সরব হল বিজেপির যুব মোর্চা। ‘ভাতা চাই, ভাতা দেও’ স্লোগান তুলে বিক্ষোভ দেখালো তারা। তাদে দাবি, বাংলার বিভিন্ন জেলায় অব্রাহ্মণদের নামও পুরোহিত ভাতা প্রাপকদের তালিকায় রয়েছে তাহলে আমরা আর বাদ যাই কেন‌ও?

পদ্ম শিবিরের অভিযোগ, পশ্চিমবঙ্গে সরকারি প্রকল্প মানেই তৃণমূলের দুর্নীতি। হয় প্রকল্পের সুবিধা পাবেন শাসকদল ঘনিষ্ঠরা। নইলে সুবিধা পেতে গেলে কাটমানি দিতে হয়। ঘূর্ণিঝড় আমফানের ত্রাণে শাসকদলের মুখ পুড়েছে। দুর্নীতির কথা স্বীকার করতে হয়েছে মুখ্যমন্ত্রীকে। টাকা ফেরত দিতে হয়েছে তৃণমূল ঘনিষ্ঠদের। এবার একই পরিণতির দিকে এগোচ্ছে পুরোহিত ভাতা প্রকল্প।

শাসক দলেরই দুর্নীতির প্রতিবাদেই শনিবার হাওড়ার পঞ্চাননতলা পার্টি অফিস থেকে মহকুমাশাসকের দফতর পর্যন্ত মিছিল করেন যুব মোর্চার কর্মীরা। মিছিলে সবাইকে ভাতা দিতে হবে বলে দাবি ওঠে। মিছিলে ধুতি পরে অংশগ্রহণ করেন যুব মোর্চার কর্মীরা।

Related Articles

Back to top button