সব খবর সবার আগে।

নিয়ম মেনে নিয়োগ হয়নি এসএসসি গ্রুপ ডি-তে, সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট

এসএসসি গ্রুপ ডি-তে যে নিয়োগের ক্ষেত্রে বেনিয়ম হয়েছে, এমন মামলা আগেই দায়ের করা হয়েছিল কলকাতা হাইকোর্টে। এবার সেই মামলায় সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিলেন কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। তবে আদালতের এই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে ডিভিশন বেঞ্চে যাওয়ার কথা ভাবছে রাজ্য সরকার, এমনটাও জানা গিয়েছে।

আজ, সোমবার মামলার শুনানি চলাকালীন বিচারপতি জানান, ব্যক্তিগতভাবে কোনও রাজনৈতিক দলের সঙ্গে বিরোধ নেই। দুষ্কৃতীরা কোনও রাজনৈতিক দলের হয় না। দুষ্কৃতীদের চিহ্নিত করতে হবে। তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন।

এরপরই এই ঘটনায় সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেন বিচারপতি। তিনি নির্দেশ দেন যে ‘ভুয়ো’ সুপারিশপত্রগুলি খতিয়ে দেখার জন্য ডিআইজি পদমর্যাদার আধিকারিককে নিয়ে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করতে হবে। আগামী ২১ ডিসেম্বরের মধ্যে কলকাতা হাই কোর্টে প্রাথমিক রিপোর্ট জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালে গ্রুপ ডি কর্মী হিসাবে প্রায় ১৩ হাজার নিয়োগের সুপারিশ করে রাজ্য। সেই অনুযায়ী পর্যায়ক্রমে পরীক্ষা ও ইন্টারভিউ নেয় সেন্ট্রাল স্কুল সার্ভিস কমিশন। এরপর তৈরি হয় প্যানেল। ২০১৯ সালে ওই প্যানেলের মেয়াদ শেষ হয়।

কিন্তু অভিযোগ, প্যানেলের মেয়াদ শেষ হওয়ার পরও অনেককেই নিয়োগ করেছে কমিশন। এভাবে বেনিয়ম করে ২৫ জনকে নিয়োগ করা হয়েছে, এমন তথ্য পেশ করে হাইকোর্টে মামলা করা হয়। এরপরই ওই ২৫ জনের নিয়োগের সুপারিশের নথি-সহ কমিশনের সচিবকে আদালতে হাজির হতে নির্দেশ দেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। ব্যাখ্যা সন্তোষজনক না হলে প্রয়োজনে সিবিআইকে দিয়ে এই তদন্ত করানো হবে বলেও জানিয়েছিলেন তিনি।

এরপর এসএসসি সচিব হলফনামা জমা দেন। এই হলফনামা দেখে বেশ অসন্তুষ্ট হন বিচারপতি। তোপ দাগেন এসএসসি সচিবকে। মধ্যশিক্ষা পর্ষদকেও এই মামলার সঙ্গে যুক্ত করেন বিচারপতি। আজ, সোমবার মধ্যশিক্ষা পর্ষদের তরফে হলফনামা জমা দেওয়া হয়। কিন্তু তাতেও সন্তুষ্ট নন বিচারপতি। এই কারণে শেষমেশ সিবিআই তদন্তের নির্দেশই দেওয়া হল।

You might also like
Comments
Loading...