রাজ্য

DA মামলায় ধাক্কার মুখে রাজ্য, রাজ্য সরকারি কর্মীদের স্বস্তি, আগামী ৩ মাসের মধ্যেই মেটাতে হবে বকেয়া DA, নির্দেশ হাইকোর্টের

কলকাতা হাইকোর্টের রায়ে স্বস্তি পেলেন রাজ্য সরকারি কর্মীরা। ডিএ মামলায় স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনাল বা স্যাটের রায়ই বহাল রাখল কলকাতা হাইকোর্ট। আগামী তিন মাসের মধ্যে বকেয়া ডিএ মিটিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আজ, শুক্রবার বিচারপতি হরিশ ট্যান্ডন ও বিচারপতি রবীন্দ্রনাথ সামন্তের ডিভিশন বেঞ্চের তরফে নির্দেশ দেওয়া হয় যে ২০০৯ সালের জুলাই মাস থেকে যে সমস্ত ডিএ বাকি রয়েছে, তা এরিয়ার সহ মেটাতে হবে।

আজ, শুক্রবার হাই কোর্ট জানায়, “কেন্দ্রীয় হারেই ডিএ দিতে হবে সরকারি কর্মীদের। মহার্ঘ ভাতা সরকারি কর্মচারিদের সাংবিধানিক এবং মৌলিক অধিকার। রাজ্য সরকারের কৌসুলিদের যুক্তি খারিজ করে দিয়ে আদালত জানিয়ে দেয়, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের আগে মহার্ঘ ভাতা অন্যরকম ছিল। ১৯৪৭ সালে প্রথম বেতন কমিশন গঠন হওয়ার পর থেকেই ডিএ বেতনের অংশ হিসাবে বিবেচিত। জিনিসপত্রের মূল্যবৃদ্ধি হলে সরকারকে ডিএ দিতেই হবে”।

এদিন হাইকোর্ট নির্দেশ দিয়ে বলে, “রাজ্য সরকার অল ইন্ডিয়া কনজিউমার প্রাইস ইনডেক্স অনুযায়ী ডিএ দিতে বাধ্য। রাজ্য সরকারি কর্মীরা ডিএ পাবেন ষষ্ঠ বেতন কমিশনের সুপারিশ অনুযায়ী। ৩ মাসের মধ্যেই রাজ্য সরকারকে কর্মীদের ডিএ মিটিয়ে দিতে হবে”।

ডিএ নিয়ে রাজ্য সরকারি কর্মীদের ক্ষোভ অনেকদিনের। তাদের দাবী, কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের ডিএ যে পরিমাণে বৃদ্ধি পায়, রাজ্য সরকারি কর্মীদের ডিএ সেভাবে বৃদ্ধি হয় না। এক্ষেত্রে রাজ্য সরকারি কর্মীরা অনেকটাই পিছিয়ে।

এর জেরে কর্মীদের আর্থিক ক্ষতি হচ্ছে বলে দাবী জানায় নানান সংগঠন। পরে ট্রাইব্যুনালের তরফে ডিএ দেওয়ার পক্ষের রায় দেওয়া হয়। তবে সেই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে মামলা করা হয় হাইকোর্টে। এই মামলা এর আগেও একাধিক বেঞ্চে গিয়েছে। অবশেষে আজ, শুক্রবার এই মামলার রায় দিল কলকাতা হাইকোর্ট।

Related Articles

Back to top button