রাজ্য

যোগ্যতা নিয়ে বড় প্রশ্ন, এসএসসি চেয়ারম্যানকে অপসারণের সুপারিশ করল কলকাতা হাইকোর্ট, সঙ্গে মোটা অঙ্কের জরিমানাও

স্কুল সার্ভিস কমিশনের চেয়ারম্যান শুভশঙ্কর সরকারকে তাঁর পদ থেকে অপসারণ করার সুপারিশ করল কলকাতা হাইকোর্ট। কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় এই সুপারিশ করেন।

এসএসসি-র চেয়ারম্যানের যোগ্যতা নিয়ে এদিন সন্দেহ প্রকাশ করেন বিচারপতি। ক্ষোভ উগড়ে তিনি জানান যে চেয়ারম্যানের ভুলের শাস্তি হিসেবেই এই সুপারিশ করা হচ্ছে। এসএসসি-তে নিয়োগ প্রক্রিয়ায় অনিয়মের মামলাতেই এই নির্দেশ দেয় আদালত। শুধু অপসারণই নয়, জানা গিয়েছে এসএসসির চেয়ারম্যানকে ২০ হাজার টাকা জরিমানাও করা হয়েছে।

এসএলএসটি-র নবম এবং দশম শ্রেণির নিয়োগ প্রক্রিয়ায় অনিয়ম হয়েছে, এই নিয়ে একটি মামলা দায়ের হয় কলকাতা হাইকোর্টে। এদিন এই মামলার প্রেক্ষিতেই এই নির্দেশ দেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়৷ এসএসসি চেয়ারম্যানের অপসারণের বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য শিক্ষা দফতরের চেয়ারম্যানকে নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি৷

এর পাশাপাশি হাইকোর্টের তরফে এও নির্দেশ দেওয়া হয় যাতে মামলাকারী চাকরিপ্রার্থীকে কাউন্সিলিংয়ের সুযোগ দেওয়া হয়। এসএসএসি চেয়ারম্যানের এই ধরনের ভুল সম্পর্কে রাজ্যের মুখ্যসচিবকে অবগত করার জন্য হাইকোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেলকেও নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়।

এদিন চেয়ারম্যানের ভূমিকায় বেশ ক্ষোভ প্রকাশ করে বিচারপতি বলেন, “এসএমএস-এ কাউন্সিলিংয়ের তিন দিন আগে কীভাবে চাকরিপ্রার্থীকে বার্তা দেওয়া হয়? কেন ই মেল বা স্পিড পোস্টে করে নিয়োগের সুপারিশ পত্র পাঠানো হয়নি?’ এসএসসি চেয়ারম্যানের যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে বিস্মিত বিচারপতি বলেন, ‘কোন ধরনের চেয়ারম্যান ইনি! কোন যোগ্যতামানে ইনি চেয়ারম্যান হিসেবে সেন্ট্রাল সার্ভিস কমিশনে কাজ করছেন”?

মামলাকারী চাকরিপ্রার্থী অভিযোগ এনেছিলেন যে এসএলএসটি-র মেধা তালিকায় তাঁর নম্বর ছিল ১৪৯। কিন্তু এরপরও তিনি নিয়োগপত্র পান নি। অথচ ১৫৯, ১৯৬, ১৯৮ নম্বরের প্রার্থীরা চাকরির নিয়োগপত্র পেয়েছেন। নিয়োগ প্রক্রিয়ায় অনিয়মের অভিযোগ তুলে হাইকোর্টে মামলা দায়ের করেন তিনি।

এদিন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় আরও নির্দেশ দেন যাতে শূন্যপদ অনুযায়ী মামলাকারী চাকরিপ্রার্থীকে তাঁর বাড়ি থেকে সবথেকে কম দূরত্বের মধ্যে পাঁচটি স্কুলের জন্য কাউন্সিলিংয়ের সুযোগ দেওয়া হয়। এর পাশাপাশি এও নির্দেশ দেওয়া হয় যে কাউন্সিলিংয়ের ৪৫ দিন আগে তাঁকে এই বিষয়ে অবগতও করতে হবে।

Related Articles

Back to top button