রাজ্য

সবে শুরু! আগামী দিনে আর‌ও ছাড়বে, রাজীব বিদায়ে মন্তব্য বিজেপির কৈলাস বিজয়বর্গীয়’র

আগামীদিনে আরও অনেকেই হয়তো তৃণমূল ছাড়বেন। বন মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের মন্ত্রিত্বে ইস্তফা প্রসঙ্গে এমন কথাই বললেন বিজেপির সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক কৈলাস বিজয়বর্গীয়। দীর্ঘদিন ধরেই রাজীবকে নিয়ে গুঞ্জন চলছিল বঙ্গ রাজনীতিতে। আজকে সকালেই আশঙ্কা সত্যি করে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি লিখে বনমন্ত্রীর পদ ছেড়ে দেন তিনি।

ইতিমধ্যেই, মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ি গিয়ে ইস্তফাও দিয়ে এসেছেন। এর সঙ্গে ইস্তফাপত্রের একটি কপি রাজ্যপালকেও জমা দিয়েছেন তিনি। রাজ্যপাল তাঁর ইস্তফা পত্র গ্রহণ‌ও করে নিয়েছেন। ইস্তফাপত্র জমা দিয়ে রাজীব বলেন, “আমাকে দীর্ঘদিন মন্ত্রী হিসেবে কাজ করতে দেওয়ার জন্য মুখ্যমন্ত্রীকে ধন্যবাদ। কী কাজ করেছি তা মানুষ বিচার করবে। মুখ্যমন্ত্রীর অবদান আমার জীবনে অনস্বীকার্য।”

তবে রাজীবের এই সিদ্ধান্ত খুব একটা আকস্মিক তা নয়। শুভেন্দু পরবর্তী তৃণমূলে ইতিমধ্যেই মন্ত্রিত্ব ছেড়েছেন লক্ষ্মী রতন শুক্লা, আর এবার রাজীব ব্যানার্জি।

আর এই বিষয়ে বক্তব্য রাখতে গিয়ে কৈলাস বিজয়বর্গীয় বলেন, “ওঁর নিশ্চয় মনে হয়েছে যে তৃণমূলে কাজ করতে পারছেন না। কারণ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাইপো মাফিয়ারাজ চালাচ্ছেন। আর এর জন্য মন্ত্রীরা কাজ করতে পারছেন না। আর যিনি অভিমানী ব্যক্তি তিনি তো থাকতে পারবেন না তৃণমূলে। কারণ যাঁরা কাজ করতে চান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারে তাঁরা কাজের সুযোগই পাচ্ছেন না। আগামীদিনে আরও অনেকেই হয়তো তৃণমূল ছাড়বেন। কারণ তৃণমূলে তাঁদেরই ইজ্জত মেলে যাঁরা ভ্রষ্টাচার, সিন্ডিকেটরাজ, মাফিয়াবাজির সঙ্গে যুক্ত।”

Related Articles

Back to top button