সব খবর সবার আগে।

ভোট পরবর্তী হিংসার ঘটনায় সিবিআইয়ের হাতে গ্রেফতার বীরভূমের তৃণমূল কর্মী, সবমিলিয়ে রাজ্যে আটক মোট ১৯

এবার বীরভূম থেকে এক তৃণমূল কর্মীকে ভোট পরবর্তী হিংসার ঘটনার দায়ে গ্রেফতার করল সিবিআই। বীরভূমের ইলামবাজারের বিজেপি কর্মী গৌরব সরকারের খুনের ঘটনায় অভিযুক্ত দিলীপ ওরফে ভনা মিদ্যা। ধৃত তৃণমূলের কর্মী বলে জানা গিয়েছে।

আজ, সোমবার ইলামবাজারের বাসিন্দা গৌরব সরকারের বাড়ি যান সিবিআই আধিকারিকরা। ভোট পরবর্তী ঘটনায় মৃত্যু হয় গৌরবের। জানা গিয়েছে গত ২রা মে বিধানসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশের দিন কয়েকজন দুষ্কৃতী বাড়ি থেকে টেনে বের করে পিটিয়ে খুন করে গৌরবকে। এরপর খুনের অভিযোগও দায়ের করা হয়।

আরও পড়ুন- নেই নিজের গাড়ি-বাড়ি, চাষযোগ্য জমি, সোনাদানা রয়েছে মাত্র ৯ গ্রাম, সম্পত্তির হলফনামা পেশ মমতার

এদিন এই মৃত্যুর ঘটনায় গ্রেফতার করা হয় বছর ২৭-এর দিলীপকে। তাঁকে প্রথমে হুগলীর শেওড়াফুলি থেকে আটক করা হয়। এদিন তাঁকে বোলপুর মহকুমা আদালতে তোলা হলে সিবিআইয়ের আইনজীবী তাঁকে ৫ দিনের হেফাজতে চেয়ে আবেদন জানান। সবদিক বিচার করে তাঁকে চারদিনের হেফাজতে নেওয়ার নির্দেশ দেয় আদালত।

গত কয়েকদিনেই নানান জেলা থেকে ভোট পরবর্তী হিংসার ঘটনায় তৃণমূল বিজেপি মিলিয়ে বেশ নেতা-কর্মীকে গ্রেফতার করেছে সিবিআই। আজ বীরভূমের এই গ্রেফতারির পর সব মিলিয়ে রাজ্যে ভোট পরবর্তী ঘটনায় সিবিআইয়ের হাতে গ্রেফতার হল মোট ১৯ জন।

উল্লেখ্য, আজ, সোমবার দুপুরে ভোট পরবর্তী হিংসার তদন্তে উত্তর ২৪ পরগনার জগদ্দলেও গিয়েছে সিবিআইয়ের তিনজনের প্রতিনিধি দল। ভোট পরবর্তী হিংসায় নিহত হন জগদ্দল থানার ভাটপাড়া পুরসভার ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের পুরানীতলার ১১ নম্বর গলির বাসিন্দা আকাশ যাদব। ২রা মে ভোটের ফল প্রকাশের দিন বেলা একটা নাগাদ তাঁকে ফোন করে ডেকে নিয়ে গিয়ে গুলিতে করে খুন করা হয়।

আরও পড়ুন- হাজিরা দিতে রাজী হন নি, এবার তাই পার্থর খোঁজে শিল্পভবনে হাজির সিবিআই

এদিন নিহতের ভাই অভিষেক যাদবকে শ্রীহরি উচ্চ বিদ্যালয়ে নিয়ে এসে তাঁরা জিজ্ঞাসাবাদ করেন। এরপর অভিষেক যাদবকে সঙ্গে নিয়ে সিবিআইয়ের প্রতিনিধি দল জগদ্দলের আতপুর এলাকায় তল্লাশির জন্য রওনা দেয়। বলে রাখি, এর আগেও দু’বার জগদ্দলে এই ঘটনার তদন্তে এসেছিলেন তদন্তকারীরা।

You might also like
Comments
Loading...