রাজ্য

গরু পাচারকাণ্ডে সবথেকে বেশি লাভ করেছেন অনুব্রত মণ্ডলই, চার্জশিটে জানাল সিবিআই

আজ, বৃহস্পতিবার গরু পাচার মামলায় চার্জশিট পেশ করতে পারে সিবিআই। আসানসোল আদালতে আজ চতুর্থ সাপ্লিমেন্টারী চার্জশিট জমা দিতে পারে সিবিআই। পুজো মিটতেই দুই কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা তৎপরতার সঙ্গে কাজ শুরু করে দিয়েছে। এদিন ইডির একটি দল আসানসোলের উদ্দেশে রওনা দিয়েছে। সায়গল হোসেনের একাধিক গোপন ডেরায় তল্লাশি চালাবে তারা।

এই মুহূর্তে যেহেতু আসানসোল বিশেষ সিবিআই আদালতে ছুটি চলছে, তাই আসানসোল সিজেএম আদালতে ইডি আবেদন জানাতে চলেছে জাতে গরু পাচার মামলা ছাড়াও অনুব্রত মণ্ডলের যে বিপুল পরিমাণ সম্পত্তির খোঁজ মিলেছে, তার পরিপ্রেক্ষিতে এবার অনুব্রতকে নিজেদের হেফাজতে নিতে চায় ইডি। এই আবেদনই আজ জানাতে চলেছে ইডি।

অন্যদিকে, একইরকমভাবে সিবিআই তৎপরতা লক্ষ করা গিয়েছে। নিজাম প্যালেস থেকে সিবিআই-এর একটি বিশেষ দল রওনা হয়েছে আসানসোল আদালতের দিকে। সেখানে গরু পাচারকাণ্ডে আগের যে তিনটি সাপ্লিমেন্টারি চার্জশিট পেশ করা হয়েছে, সেখানে সায়গল হোসেনের নাম রয়েছে এবং সায়গল হোসেন মূল টাকা কালেকশন করতেন বলেই বলা হয়েছে।

কিন্তু প্রশ উঠছে যে সেই টাকা কার কাছে যেত। এই চতুর্থ সাপ্লিমেন্টারি চার্জশিটে সিবিআই আজ কোর্টকে জানাবে যে অনুব্রত মণ্ডলই মূল বেনিফিশিয়ারি। অর্থাৎ গরু পাচারকাণ্ড এবং আর্থিক লেনদেন বা বিপুল সম্পত্তি দু’দিক থেকেই অনুব্রত মণ্ডলের দিকে আরও এক কদম এগিয়ে যেতে চায় কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থারা।

অন্যদিকে, জানা যাচ্ছে যে দিল্লি থেকে আসা তিন সদস্যের বিশেষ ইডি-র দল আজ জেলে গিয়ে সায়গল হোসেনকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। গরু পাচারকাণ্ডে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হতে পারে বলে জানা যাচ্ছে। আদালত থেকে ইতিমধ্যেই জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি পেয়ে গিয়েছেন তারা।

সিবিআই সূত্রে খবর, অনুব্রত মণ্ডলের অ্যাকাউন্টে টাকা তেমন নেই। তবে তার মেয়ে সুকন্যা মণ্ডলের নামে নানান কোম্পানিতে বিপুল পরিমাণ আর্থিক লেনদেনের হদিশ মিলেছে। তদন্তকারীদের অনুমান, অনুব্রতর নামেও বেশ কিছু সম্পত্তি রয়েছে।

Related Articles

Back to top button