রাজ্য

সিবিআই নয়, এবার অর্জুনের ডেরায় হানা সিআইডির, তলব পড়ল বাহুবলী নেতার

গত সোমবারই নারদ কাণ্ডে রাজ্যের দুই মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম ও সুব্রত মুখোপাধ্যায়, বিধায়ক মদন মিত্র, ও রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা কলকাতার প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই। এবার সিবিআইয়ের পাল্টা সিআইডি তলব করল বিজেপির সাংসদ অর্জুন সিং-কে।

নারদ মামলায় অভিযুক্ত চার নেতামন্ত্রীদের গত সোমবারই শুনানি হয় ব্যাঙ্কশাল কোর্টের নিম্ন আদালতে। জামিনও পেয়ে যান তারা। কিন্তু এরপরই রাতে কলকাতা হাইকোর্টের রায়ে সেই জামিনে স্থগিতাদেশ জারি হয় এবং জেলে কাটাতে হয় চার অভিযুক্তদের। এখনও সেই মামলার শুনানি হয়নি।

সিবিআই-র গ্রেফতারি নিয়ে বিজেপিকে নিশানা করেছে তৃণমূল। নির্বাচনে পরাস্ত হয়ে প্রতিহিংসা পরায়ণের কারণেই মন্ত্রীদের গ্রেফতার করানো হয়েছে, এমনটাই দাবী ওঠে ঘাসফুল শিবিরে। এই অবস্থায় ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং-এর বাড়িতে নোটিশ দিল সিআইডি।

আরও পড়ুন- আজ জেলেই কাটাতে হবে! অন্য ডিভিশন বেঞ্চে স্পর্শকাতর নারদ কান্ডের শুনানি হবে না জানালো হাইকোর্ট

জানা গিয়েছে, গতকাল বৃহস্পতিবার, মেঘনা মোড়ের কাছে অর্জুন সিং-এর মজদুর ভবনে নোটিশ দিয়েছে সিআইডি। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করা হয়েছে এই বাহুবলী নেতাকে। ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির বিপর্যয় ঘটলেও নিজের গড় ভাটপাড়া ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছেন অর্জুন। ওই এলাকা থেকে বিধায়ক নির্বাচিত হয়েছেন বিজেপি প্রার্থী অর্জুন পুত্র পবন সিং।

প্রসঙ্গত, জন্মলগ্ন থেকে তৃণমূলের সঙ্গেই ছিলেন ভাটপাড়ার বিধায়ক অর্জুন সিং। ঘাসফুল শিবিরের এই দুর্দিনের সৈনিক ২০১৯ সালের লকসভা নির্বাচনের আগে দলবদল করেন। পরে বিজেপির টিকিটে জিতে সাংসদ নির্বাচিত হন। তারপর থেকেই সমবায় দূর্নীতি মামলায় তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে। রাজ্য পুলিশের পক্ষ থেকে অর্জুনের বিরুদ্ধে সক্রিয়তা দেখানো হয়।

Related Articles

Back to top button