রাজ্য

কোটি কোটি টাকার ঋণ রাজ্যের, অবসরপ্রাপ্তদের পেনশন ব্যাহত, এদিকে ক্রেতা সুরক্ষা দফতরের তিনদিনের মেলায় খরচ দেড় কোটি!

মেলায় চা-জলখাবারের জন্য বরাদ্দ বারো লক্ষ টাকা আর অনুষ্ঠান সঞ্চালনার জন্য খরচ নয় লক্ষ। না, কোনও কর্পোরেট সেক্টরে নয়, বরং রাজ্যের ক্রেতা সুরক্ষা দফতরের তিনদিনের মেলায় খরচের হিসাব এটা। আর গোটা মেলার খরচ শুনলে চোখ কপালে উঠবে।

এদিকে রাজ্যের কোটি কোটি টাকার ঋণের জেরে অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মীদের পেনশন ব্যাহত হচ্ছে। কিন্তু এত কিছুও পরও প্রশাসনের কোনও হেলদোল নেই।

গত ২৫শে মার্চ থেকে নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে শুরু হয়েছে ক্রেতা সুরক্ষা দফতরের মেলা। সেই মেলায় নানান নানান খাতে অর্থ বরাদ্দ দেখাতে হচ্ছে। আর তা দেখেই চমকে উঠেছেন অনেকেই। সংবাদপত্রে বিজ্ঞাপনের জন্য খরচ ৭৫ লক্ষ টাকা, টিভিতে বিজ্ঞাপনের জন্য খরচ ৮ লক্ষ টাকা। চেয়ার-টেবিল, হোর্ডিং, বিদ্যুতের জন্য বরাদ্দ ৫০ লক্ষ টাকার উপর। এদিকে জলখাবারের জন্য ১২ লক্ষ টাকা আর সঞ্চালনার জন্য খরচ ৯ লক্ষ টাকা। উপহারস্বরূপ ১ লক্ষ টাকা খরচ করতে বলা হয়েছে। তাহলে সব মিলিয়ে খরচ দাঁড়াল মোট ১ কোটি ৫৮ লক্ষ টাকার উপর।

দেখে নিই কোন খাতে কী খরচ হয়েছে?

  • সংবাদপত্রে বিজ্ঞাপন খরচ ৭৫ লক্ষ টাকা
  • টিভিতে বিজ্ঞাপন ৮ লক্ষ ৮৫ হাজার ৭০০ টাকা
  • হোডিং, চেয়ার-টেবিল, বিদ্যুৎ-এর জন্য ৫০ লক্ষ ৮২ হাজার
  • চা ও জলখাবার ১২ লক্ষ ২১ হাজার
  • উপহারের খরচ ১ লক্ষ ৩৬ হাজার
  • মোট খরচ ১ কোটি ৫৮ লক্ষ ৬৯ হাজার ৭০০

এই গোটা বিষয়ে ক্রেতা সুরক্ষা মন্ত্রী মানস ভুঁইয়া জানান, “এই মেলাতে প্রচুর অতিথি আসেন।বিভিন্ন জায়গা থেকে আসেন তাঁরা। তাঁদের আমরা নিজেদের কাছে নিয়ে এসে বসাই। চা-কফি থেকে সমস্ত পানীয় থাকে। উপহার দেওয়া হয় তাঁদের। এই বিষয়ে এর থেকে বেশি কোনও মন্তব্য করতে পারব না।যে অফিসাররা এত বছর ধরে মেলা করছেন তাঁরা ভালো বলতে পারবেন”।

ক্রেতা সুরক্ষা দফতরের মেলায় অনেক মানুষকে সচেতন করা হয়। এই মেলার উদ্দেশ্য অবশ্যই ভালো কিন্তু তা বলে মেলার জন্য দেড় কোটি টাকার উপর খরচ, সেটা কতটা আদৌ যুক্তিযুক্ত, তা নিয়ে প্রশ্ন তো উঠেছেই।

Related Articles

Back to top button