রাজ্য

বিরাট বাঁচোয়া! পশ্চিমবঙ্গে হচ্ছেনা ঘূর্ণিঝড় যশের ল্যান্ডফল, মুখ ঘুরছে ওড়িশার দিকে

কিছুটা হলেও ভয় কাটলো বঙ্গবাসীর। আমফান টু হয়ত হবেনা বাংলায়। ভারতীয় আবহাওয়া অধিদফতর সূত্রে জানানো হয়েছে, পশ্চিমবঙ্গে হচ্ছে না অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় যশের ল্যান্ডফল। তাঁরা আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন এই ঘূর্ণিঝড়ের ল্যান্ডফল হতে পারে ওড়িশা উপকূল। বিজ্ঞানীদের আশঙ্কা আজ অর্থাৎ সোমবার আরও শক্তি সঞ্চয় করে প্রবল থেকে অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে যশ। তারপর বুধবার আঘাত হানবে সে। এই ঘূর্ণিঝড়ের ল্যান্ডফল বুধবার সন্ধ্যের দিকে হওয়ার কথা থাকলেও সময় এগিয়ে তা এখন দুপুরের কাছাকাছি ধরা হচ্ছে। রবিবার দিঘা থেকে ৬৭০ কিলোমিটার দূরে বঙ্গোপসাগরে তৈরি হয়েছে গভীর নিম্নচাপ। তবে এই ঘূর্ণিঝড়ে চিন্তা থেকে যাচ্ছে পূর্ব মেদিনীপুরকে ঘিরে।

আরও পড়ুন-আসছে শক্তিশালী “যশ”, ঝড়ের দিন বিভিন্ন জায়গায় বন্ধ থাকতে পারে বিদ্যুৎ পরিষেবা! জানাল CESC, চালু হেল্পলাইন নম্বর

আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, ওড়িশার বালেশ্বরে হবে ঘূর্ণিঝড় যশের ল্যান্ডফল। এখনও পর্যন্ত ঘূর্ণিঝড়ের যে অভিমুখ বিজ্ঞানীদের পর্যবেক্ষণ করেছেন তাতে স্পষ্ট হয়েছে, অল্পের জন্য রক্ষা পাবে পশ্চিমবাংলা। কলকাতার ধার ঘেঁষে বেরিয়ে যশ। তবে প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে বাঁকুড়া, বীরভূম, পুরুলিয়ার মতো জেলায় ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

আরও পড়ুন- ইতিমধ্যেই পরিণত হয়েছে ঘূর্ণিঝড়ে! গতি বাড়িয়ে বুধবার দুপুরেই আছড়ে পড়তে পারে “যশ”

তবে বিজ্ঞানীদের আশঙ্কা করছেন ওই দিন রয়েছে পূর্ণিমা। যশ যদি পূর্বনির্ধারিত সময়ের আগেই স্থলভাগে প্রবেশ করে তাহলে ভয়ঙ্কর হয়ে উঠতে পারে পরিস্থিতি‌। কারণ বুধবার সকাল ৯টা সাড়ে ৯টা থেকেই পূর্ণিমা। তখন সমুদ্র প্রাকৃতিক নিয়মেই উত্তাল থাকে। এরপর ঘূর্ণিঝড়ের সংযুক্তিকরণ ঘটলে পরিস্থিতি পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণহীন হয়ে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

Related Articles

Back to top button