রাজ্য

‘সিপিএমের রক্তেই নৃশংসতা, ওরা রক্তচোষা’, সারমেয় হত্যাকাণ্ডের জন্য ‘রেড ভলেন্টিয়ার’কে আক্রমণ দেবাংশুর, তোপ শ্রীলেখাকেও

কিছুদিন আগেই নিজেকে রেড ভলেন্টিয়ার নামে পরিচয় দেন শশাঙ্ক ভাবসর নামে এক যুবক। তার সঙ্গে শর্তসাপেক্ষ ডেটেও গিয়েছিলেন টলি অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র।

জানা গিয়েছিল, অভিনেত্রীর দেওয়া একটি সারমেয়র দায়িত্ব স্বেচ্ছায় নিজে নিয়েছিলেন ওই যুবক। কিন্তু কিছুদিন পরই সে যুবকের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ ওঠে।

আরও পড়ুন- মুখেই তরুণদের ডাক, এদিকে যুবদের সংখ্যা ৯%-এরও কম, এখনও সিপিএমের হাড়ে-মজ্জায় জড়িয়ে বৃদ্ধ-বৃদ্ধারাই

জানা গিয়েছে, বেশ কিছুদিন ধরেই সেই সারমেয়টিকে দেখতে পাচ্ছিলেন না শ্রীলেখা। এই বিষয়ে শশাঙ্ককে বারবার জিজ্ঞেস করাতেও সে নানান অজুহাত দেখাচ্ছিল। সেই কুকুরটির ছবি বা ভিডিও চাইলেও, পুরনো ছবি বা ভিডিও পাঠাতো বলে দাবী অভিনেত্রীর। এর কয়েকদিন পরই ওই যুবক জানায় যে কুকুরটি নাকি দুর্ঘটনায় মারা গিয়েছে।

এরপরই কুকুর ছানাটিকে হত্যার অভিযোগে শশাঙ্কের বিরুদ্ধে সোশ্যাল মিডিয়ায় এক বিস্ফোরক পোস্ট করেন অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র। সেই পোস্ট ব্যাপক হারে ভাইরাল হয়। এবার এই ঘটনা নিয়ে মুখ খুললেন তৃণমূল মুখপাত্র দেবাংশু ভট্টাচার্য। এই ঘটনায় সিপিএমের তীব্র সমালোচনা করে তিনি বলেন, “এদের রাজনৈতিক রক্তে নৃশংসতা.. ডিএনএতে স্বার্থান্বেষী পিশাচবৃত্তি.. স্বভাবে অবিকল রক্তচোষা। হিংস্রতা এদের ভিত্তি, নিষ্ঠুরতা এদের অতীত”।

শুধু তাই-ই নয়, শ্রীলেখাকেও পরোক্ষভাবে আক্রমণ শানান দেবাংশু। তাঁর কথায়, “ডেট ও কফির সাথেই অবলা সারমেয়টিও শেষ..”। শশাঙ্কের সম্বন্ধে তাঁর ধারণা, “ঘটনা শুনে আমার বিশ্বাস, খোঁজ নিলে হয়ত জানা যাবে তার বাবা বা কাকা একসময়ের লোকাল কমিটি কিংবা জোনাল কমিটির মেম্বার ছিল”।

আরও পড়ুন- ‘দুয়ারে সরকার’ ক্যাম্পে দুর্নীতি, খবর সংগ্রহ করতে যাওয়ায় সাংবাদিককে বেধড়ক মার, অভিযোগের কাঠগড়ায় তৃণমূল

এই গোটা ঘটনায় রীতিমতো শোরগোল পড়ে গিয়েছে গোটা সোশ্যাল মিডিয়ায়। একদিকে যখন দেবাংশুকে সমর্থন করে অনেকেই শ্রীলেখা ও শশাঙ্ক সম্পর্কে কটূক্তি করেছেন আবার অন্যদিকে অনেকে শ্রীলেখাকে পরামর্শ দিয়েছেন তিনি যাতে এই বিষয়ে আইনি সাহায্য নেন।

Related Articles

Back to top button