রাজ্য

বড় ধস অভিষেকের গড়ে! ঘাসফুল ছেড়েই পদ্মফুলে যোগ দিলেন ডায়মন্ড হারাবারের বিধায়ক

গতকালই দল ছেড়েছেন ডায়মন্ড হারাবারের তৃণমূল বিধায়ক। এরপর আজই বারুইপুরে বিজেপির যোগদান সভায় গেরুয়া শিবিরে নাম লেখালেন তৃণমূলত্যাগী দীপক হালদার। তবে তৃণমূল ছাড়লেও বিধায়ক পদ এখনও ছাড়েননি দীপকবাবু , একথা আগেই জানিয়েছিলেন। এদিন তাঁর সঙ্গে বিজেপিতে যোগ দিলেন আরও প্রায় ১৬ জন তৃণমূল নেতা। এর জেরে বড় ধাক্কা খেল দক্ষিণ ২৪ পরগণার তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের গড়। বিধানসভা নির্বাচনের আগেই তৃণমূলের শিবিরে বড়সড় ধস নামল।

আজ, মঙ্গলবার বারুইপুরে ছিল বিজেপি যোগদান মেলা। এদিনের সভায় উপস্থিত ছিলেন শুভেন্দু অধিকারী, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, মুকুল রায়, প্রমুখ। এঁদের উপস্থিতিতেই গেরুয়া পতাকা হাতে তুলে নেন দীপক হালদার। শুভেন্দু অধিকারী তাঁকে দলে স্বাগত জানান। এদিন দীপক হালদারের সঙ্গে বিজেপিতে যোগ দেন তৃণমূলের আরও কয়েকজন নেতা। এঁদের মধ্যে রয়েছেন রাজপুর-সোনারপুর পুরসভার প্রাক্তন উপপুরপ্রধান অভিতাভ বসু চৌধুরী।

বেশ কিছুদিন ধরেই ডায়মন্ড হারবারের বিধায়ক দীপক হালদারকে নিয়ে জল্পনা তৈরি হয়েছিল। দলের বিরুদ্ধে সুরও চড়িয়েছিলেন তিনি। এরপর জল্পনা উস্কে চলতি বছরের গোড়াতেই বিজেপি নেতা শোভন চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে তাঁর গোলপার্কের বাড়িতে দেখা করতেও আসেন তিনি। তবে এই বিষয়ে তিনি বলেন যে নেহাতই ব্যক্তিগত সম্পর্কের জেরেই শোভনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন তিনি। এরপর দলের বিরুদ্ধে সরব হয়ে গত ২২শে জানুয়ারি তিনি বলেন যে তাঁর রাজনৈতিক অবস্থান সম্পর্কে ১লা ফেব্রুয়ারি সবটা ঘোষণা করবেন তিনি।

সেই অনুযায়ীই হয় কাজ। গতকাল, ১লা ফেব্রুয়ারি দীপক হালদার তৃণমূল ছাড়েন। তাঁর ইস্তফাপত্র তিনি স্পিড পোস্টের মাধ্যমে দলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সির কাছে পাঠিয়ে দেন। তবে বিজেপিতে যোগ দেবেন কী না, এ নিয়ে গতকাল মুখ খোলেননি দীপকবাবু। এরপর আজ জল্পনা সত্যি করেই গেরুয়া শিবিরে নাম লেখান দীপক হালদার।

Related Articles

Back to top button