রাজ্য

‘একজন নেতার পুজোয় ভিড় হওয়ার কারণে করোনা বেড়েছে’, পরোক্ষভাবে সুজিত বসুকে তোপ দিলীপ ঘোষের

পুজো মিটতেই রাজ্যে বেড়েছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। উৎসবের মরশুমে করোনা বিধি মেনে না চলা, মাস্ক না পরাকেই এই বাড়বাড়ন্তের জন্য দায়ী করেছেন বিশেষজ্ঞ মহল। এবার করোনার সংক্রমণ বাড়ার জন্য পরোক্ষভাবে শ্রীভূমি স্পোর্টিং ক্লাবের পুজোকেই দায়ী করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

আগামী ৩০শে অক্টোবর রয়েছে কোচবিহারের দিনহাটাতে উপনির্বাচন। এই কারণে ভোট প্রচারের জন্য সেখানেই রয়েছেন দিলীপ ঘোষ ও বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার। আজ, বুধবার কোচবিহারের সাগরদিঘি পাড় এলাকায় প্রাতঃভ্রমণে বেরিয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন দিলীপ ঘোষ। সেখানেই করোনার বাড়বাড়ন্ত নিয়ে কথা বলেন তিনি।

শ্রীভূমি স্পোর্টিং ক্লাবের দুর্গাপুজো এবছর নজর কেড়েছিল সকলেরই। কারণ অবশ্যই এই মণ্ডপের থিম। কলকাতায় দাঁড়িয়ে দুবাইয়ের বুর্জ খলিফা দেখার সুযোগ পান দর্শনার্থীরা। এই কারণে ভিড়ও হয়েছিল খুব বেশি। করোনার বাড়বাড়ন্তের কারণ হিসেবে শ্রীভূমি স্পোর্টিং ক্লাবকেই দায়ী করলেন দিলীপ ঘোষ।

সরাসরি তা না বললেও, পরোক্ষভাবে তা বুঝিয়ে দেন দিলীপবাবু। তাঁর কথায়, “একজন নেতার পুজোতে নাকি লাখো লাখো লোকের ভিড় হয়েছে। তাই স্বাভাবিকভাবেই সংক্রমণ বেড়েছে। রাজ্য সরকারের তরফে অবিলম্বে করোনা সংক্রমণ রোধে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া উচিত। নইলে করোনা পরিস্থিতি আরও ভয়ংকর হবে”।

শ্রীভূমির এই বুর্জ খলিফা মণ্ডপ বারবার বিতর্কে জড়িয়েছে। মণ্ডপের লেজার লাইটের কারণে বিমান চলাচলের ক্ষেত্রে সমস্যা হচ্ছে বলে অভিযোগ ওঠে। সেই সময় বিজেপি রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার মুখ খোলেন। তিনি দাবী করেন যে কারও আনন্দ যাতে অন্যের কাছে সংকটের কারণ না হয়ে ওঠে সেদিকে নজর রাখা উচিত ছিল।

শুধু বিরোধীরাই নন, শ্রীরামপুরের তৃণমূল সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ও বুর্জ খলিফার বিরোধিতা করেন। তাঁর কথায়, করোনাবিধি মেনে আয়োজন করা দরকার ছিল। কিন্তু এই বিতর্ক নিয়ে একটি কোনও কথা বলতে শোনা যায়নি দমকলমন্ত্রী সুজিত বসুকে। যদিও ভিড় সামাল দিতে মহানবমী থেকে শ্রীভূমি স্পোর্টিংয়ের পুজো মণ্ডপে দর্শনার্থী প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল।

Related Articles

Back to top button