সব খবর সবার আগে।

‘খোদ পশ্চিমবঙ্গে দুর্গাপ্রতিমা ভেঙেছে দুষ্কৃতীরা, পশ্চিমবঙ্গ কী বাংলাদেশের দিকেই এগোচ্ছে?’, নেটমাধ্যমে ক্ষোভ জাহির দিলীপের

একুশের নির্বাচনে প্রচারের সময় বিজেপি নেতারা বারবার দাবী করেছিলেন যে বাংলাতে দুর্গাপুজো করতে দেওয়া হয় না। এবার বিজেপি সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ বিস্ফোরক দাবী করে বলেন যে শুধু বাংলাদেশেই নয়, পশ্চিমবঙ্গতেও দুর্গা প্রতিমা ভাঙা হয়েছে। পূর্ব মেদিনীপুরের এগরা সেন্ট্রাল বাসস্ট্যান্ডের ঘটনা প্রসঙ্গে এমন বলেন তিনি। এই নিয়ে নেট মাধ্যমে ক্ষোভও হাজির করেন দিলীপ ঘোষ।

ফেসবুকে দিলীপবাবু লিখেছেন, “‌যারা বাংলাদেশের দুর্গাপুজোর উপর হামলা নিয়ে খুব চিন্তিত, তারা কি জানেন যে খোদ পশ্চিমবঙ্গের পূর্ব মেদিনীপুর জেলার এগরা সেন্ট্রাল বাস স্ট্যান্ডের একটি পুজোর দুর্গা প্রতিমা কিছু দুষ্কৃতী এসে ভেঙে দিয়েছে। ঘটনা ধামাচাপা দিতে রাজ্যের পুলিশ ও তার উচ্চ আধিকারিকেরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে তড়িঘড়ি প্রতিমা বিসর্জনের ব্যবস্থা করে। তবে কি পশ্চিমবঙ্গ এবার বাংলাদেশের দিকেই এগোচ্ছে”? নিজের এই মন্তব্যে দিলীপ ঘোষ ইঙ্গিত করেছেন যে বাংলাদেশের মৌলবাদ, বাংলার মাটিতে কায়েম হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশের একটি গ্রামে হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িতে হামলা করা হয় বলে অভিযোগ ওঠে। আবার হিন্দু অধ্যুষিত অঞ্চল নোয়াগাঁও গ্রামেও দুষ্কৃতীরা হামলা চালায়। এমনকি, কুমিল্লার পর বাংলাদেশের নানান জায়গাতেই দুর্গামণ্ডপে হামলা ও প্রতিমা ভাঙার খবর আসে। অনেক জায়গাতে আবার দুর্গাপ্রতিমাতে কালি লেপে দেওয়ার অভিযোগও ওঠে।

বাংলাদেশের এই ঘটনার সঙ্গে পশ্চিমবঙ্গের ঘটনাকে মিলিয়ে দেওয়ার প্রবণতা নিয়ে জোর চর্চা শুরু হয়েছে। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বার্তা দিয়েছেন সকলে যেন সংযমী আচরণ করেন। তবে দিলীপ ঘোষের মন্তব্যকে সমর্থন করেছেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। বাংলাতেও অশান্তি ঘটেছে বলে দাবী করে টুইট করেন তিনি।

টুইট করে শুভেন্দু লেখেন, “গতকাল মা দুর্গার প্রতিমা নিরঞ্জনের সময় করিমপুর, নদিয়া, কুলটি, পশ্চিম বর্ধমান ও অন্যান্য জায়গায় কিছু অপ্রীতিকর ঘটনা হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গের মানুষ জানতে চান কোন কারণের জেরে ঘটনা এই দিকে মোড় নিয়েছে। রাজ্যের মুখ্যসচিব ও স্বরাষ্ট্র সচিব, ডিজিপিকে সামনে আসতে হবে ও পাবলিক ডোমেনে তথ্য দিতে হবে”।

You might also like
Comments
Loading...