সব খবর সবার আগে।

নেতাজী জন্মজয়ন্তীতে বক্তৃতা না দিয়েই মঞ্চ ছাড়লেন মমতা! কেন‌ও ঘটল এমন অঘটন?

মানে মানে অনুষ্ঠান উতরে গেলেই হত। কিন্তু সেই তাল কাটলই। ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে আয়োজিত নেতাজী জন্ম জয়ন্তী অনুষ্ঠানে অপমানিত বোধ করলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সরকারি অনুষ্ঠানকে রাজনৈতিক বানিয়ে ছাড়লেন বিজেপি সমর্থকরা। যে নেতাজিকে নিয়ে ছিল আজকের অনুষ্ঠান সেখানেই আওয়াজ উঠল জয় শ্রীরাম। আর তাতেই অপমানিত হলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রতিবাদে কোনও মন্তব্য না রেখেই মঞ্চ ছাড়লেন মুখ্যমন্ত্রী।

ঠিক কী ঘটনা ঘটল? নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর ১২৫ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে সংগীতানুষ্ঠানের পরই মঞ্চে বক্তব্য রাখতে আমন্ত্রণ জানানো হয় মুখ্যমন্ত্রীকে। কিন্তু পূর্বনির্ধারিত সূচি অনুযায়ী সেই জায়গায় রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের বক্তৃতা দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সময়ের আগেই মুখ্যমন্ত্রীকে ডেকে নেওয়া হয়। মমতা মঞ্চে উঠতেই দর্শকাসন থেকে উড়ে আসে জয় শ্রীরাম ধ্বনি। আর তাতেই মেজাজ হারান মমতা। ভরা অনুষ্ঠানে স্পষ্ট বলেন “এটা কোনও রাজনৈতিক মঞ্চ নয়। আমি মনে করি এভাবে আমন্ত্রণ জানিয়ে বেইজ্জত করা উচিত নয়। সেই জন্যই আমি আর একটি কথাও এখানে বলব না। তবে কলকাতায় এই অনুষ্ঠান আয়োজন করায় আমি প্রধানমন্ত্রী  মোদিকে ধন্যবাদ জানাই।” একথা বলেই মঞ্চ থেকে নেমে যান তিনি।

বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর পরই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বক্তব্য রাখতে মঞ্চে উপস্থিত হলেও একইভাবে ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি ওঠে। তবে সঙ্গে সঙ্গে পাল্টা ‘জয় হিন্দ’ ধ্বনি তুলে ঘটনার মোড় ঘুরিয়ে দেন মোদি। যদিও মুখ্যমন্ত্রীর মন্তব্য না করা নিয়ে কোনও প্রতিক্রিয়া দেননি তিনি।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এর আগেও বেশ কয়েকবার জয় শ্রীরাম ধ্বনি শুনে ক্ষুব্ধ হতে দেখা গিয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। তবে হালফিল এই বিষয়ে আর মাথা গরম করে না তিনি। কিন্তু আজ নেতাজির জন্ম জয়ন্তীর মঞ্চে নিজেকে সংযত রাখতে পারলেন না। আর তারপর‌ই সিদ্ধান্ত নেন বক্তব্য না রাখার,  মঞ্চ ছাড়ার।

_taboola.push({mode:'thumbnails-a', container:'taboola-below-article', placement:'below-article', target_type: 'mix'}); window._taboola = window._taboola || []; _taboola.push({mode:'thumbnails-rr', container:'taboola-below-article-second', placement:'below-article-2nd', target_type: 'mix'});
You might also like
Comments
Loading...