সব খবর সবার আগে।

টাইপ ২ ডায়াবেটিস ওষুধে কার্সিনোজেন ‘বিষ’! ৫ সংস্থাকে ওষুধ তুলে নেওয়ার নির্দেশ দিল FDA

ডায়াবেটিসের ওষুধেই লুকিয়ে আছে ক্যান্সারের বীজ। এমনটাই জানাল মার্কিন ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের (FDA) কর্তারা। টাইপ ২ ডায়াবেটিক রোগীদের জন্য যে ওষুধ বরাদ্দ করেছে চিকিৎসকরা, সেই ওষুধেই মিলল কার্সিনোজেনের উপস্থিতি। কার্সিনোজেন হল এমন একটি উপাদান যাকে ক্যান্সারের জন্য সরাসরি দায়ি করেছেন বিজ্ঞানীরা। এই ‘কার্সিনোজেন’ নামের ‘বিষ’ শরীরে প্রবেশ করলে তা ক্যান্সারের ঝুঁকি বহুগুণ বাড়িয়ে দিতে পারে।

ডায়াবেটিসের ওষুধে কার্সিনোজেনের উপস্থিতি পেয়ে এ বার মার্কিন ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (FDA) কিছু ওষুধ বাজার থেকে তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়।৫ টি ফার্মাসিউটিক্যাল সংস্থার তৈরি টাইপ ২ ডায়াবেটিসের ওষুধ ‘মেটফরমিন’-এর মধ্যেই কার্সিনোজেনের মতো ‘বিষ’ এন-নাইট্রো সোডিমেথিলামাইন (NDMA)-এর প্রমাণ মিলেছে।

‘মেটফরমিন’-এ কার্সিনোজেনের প্রমাণ মেলার পরই ওই পাঁচ ফার্মাসিউটিক্যাল সংস্থাকে তাঁদের ওষুধগুলি বাজার থেকে তুলে নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে FDA। তবে একই সঙ্গে বাজার থেকে ডায়াবেটিসের সব ওষুধ তুলে নিলে রোগীদের জীবন বিপন্ন হতে পারে। তাই ওই ঘাটতি কী ভাবে পূরণ করা যায়, তা নিয়ে আলোচনা করছে মার্কিন ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের (FDA) কর্তারা।

জানা গিয়েছে, গত ফেব্রুয়ারি থেকে আমেরিকার ২২টি ওষুধ তৈরি সংস্থার ওষুধে ‘মেটফরমিন’-এ কার্সিনোজেন বিষয়টি নিয়ে নানা পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালান FDA-এর গবেষকরা। ২২টি ফার্মাসিউটিক্যাল সংস্থার তৈরি ‘মেটফরমিন’-এর ১৬টি ব্যাচের (১৬টি পর্যায়ে বাজারে ছাড়া) ৪২ শতাংশ নমুনাতেই উচ্চ মাত্রায় (NDMA)-এন-নাইট্রো সোডিমেথিলামাইনের সন্ধান মিলেছে। এর পরই ওই সংস্থাগুলোকে তাদের ওষুধগুলি বাজার থেকে তুলে নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে FDA। ইতিমধ্যেই ওষুধের ঘাটতি মেটাতে বিকল্প ব্যবস্থা নিতে অন্যান্য ফার্মাসিউটিক্যাল সংস্থাগুলির সঙ্গে আলোচনা চালাচ্ছেন FDA-এর কর্তারা।

_taboola.push({mode:'thumbnails-a', container:'taboola-below-article', placement:'below-article', target_type: 'mix'}); window._taboola = window._taboola || []; _taboola.push({mode:'thumbnails-rr', container:'taboola-below-article-second', placement:'below-article-2nd', target_type: 'mix'});
You might also like
Comments
Loading...
Share