রাজ্য

ভোটে অনীহা ভবানীপুরবাসীর, উদ্বিগ্ন হয়ে মমতার হয়ে ভোট চেয়ে টুইট করে বিতর্কে জড়ালেন ফিরহাদ, তোপ বিজেপির

ভবানীপুরে যেন ভোট দিতে আসার কোনও তাগিদই নেই এলাকাবাসীদের মধ্যে। বেলা ১১টা পর্যন্ত ভোট হয়েছে মাত্র ২১ শতাংশ যা নিয়ে বেশ চিন্তায় পড়েছে ঘাসফুল শিবির। এমন পরিস্থিতিতে ভোটারদের বুথমুখী করতে টুইট করে আবেদন জানালেন রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।

এই ঘটনা নিয়ে শুরু হয়েছে ব্যাপক বিতর্ক। বিজেপির তরফে অভিযোগ করা হয়েছে যে এভাবে ভোট চাওয়ার অছিলায় ভোটারদের প্রভাবিত করছেন ফিরহাদ হাকিম। এই নিয়ে নির্বাচন কমিশনের কাছে নালিশ জানায় গেরুয়া শিবির। ফলস্বরূপ, তৃণমূলের থেকে রিপোর্ট তলব করেছে কমিশন।

আরও পড়ুন- ভোট পড়ছে না ভবানীপুরে, টুইট করে এলাকাবাসীকে ভোট দিতে যাওয়ার আর্জি জানালেন ফিরহাদ হাকিম

এদিন সকাল ১০টা নাগাদ টুইট করে ফিরহাদ হাকিম লেখেন, “ভবানীপুরের সবাইকে আজকে অনুরোধ করছি উন্নয়নের পক্ষে ভোট দিন, সমতার পক্ষে ভোট দিন”। এই টুইটের সঙ্গেই হ্যাশট্যাগটু জুড়ে দিয়ে ফিরহাদ লেখেন, #MamataBanerjeeForBhabanipur। যা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে রাজ্য রাজনীতিতে।

আবার অন্যদিকে রাজ্যের অন্য এক মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের টুইটে লেখেন, “আজ ভবানীপুর-সহ বাংলার তিন কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ। আমাদের ভোটারদের উদ্বুদ্ধ করতে হবে ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে জয়ী করতে হবে”।

বলে রাখি, এদিন ভোটগ্রহণ শুরু হওয়ার দু’ঘণ্টা পর ভবানীপুরে ভোট পড়ে মাত্র ৭.৫৭ শতাংশ। যা দেখে বেশ উদ্বিগ্ন হয়ে ওঠে শাসকমহল। এরপর বেলা ১১টার পর ভোটদানের হার কিছুটা বেড়ে দাঁড়ায় ২১.৭৩ শতাংশে।

আরও পড়ুন- ‘মদন মিত্র বুথ দখল করতে চান, ভোটিং মেশিন বন্ধ করে দিয়েছেন’, ভবানীপুরে বুথ পরিদর্শনে গিয়ে বিস্ফোরক প্রিয়াঙ্কা

প্রথমে মনে করা হচ্ছিল যে আবহাওয়া খারাপ থাকলে মানুষ হয়ত ভোট দিতো আসবেন না। কিন্তু সকাল থেকেই আকাশ মোটামুটি পরিস্কার। কিন্তু তা সত্ত্বেও ভোটারদের দেখা নেই বুথে বুথে। আর এমন পরিস্থিতিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে এই পরীক্ষায় পাশ করাতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন তৃণমূলে কর্মী থেকে শুরু করে রাজ্যের মন্ত্রীরাও। আবেদন জানানো হচ্ছে ভোট দেওয়ার জন্য। এ নিয়ে বিজেপির পাল্টা অভিযোগ, এভাবে ভোটারদের প্রভাবিত করতে চাইছে তৃণমূল।

Related Articles

Back to top button