রাজ্য

নিয়োগ হচ্ছে না স্কুলে! শিক্ষক-শিক্ষিকার অভাবে উদ্বোধন হওয়ার পর থেকেই গেটে ঝুলছে তালা, আট বছর ধরে বন্ধ সরকারি স্কুল

একদিকে নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে রাজ্য সরকার জর্জরিত। ভুয়ো নিয়োগ বা নিয়োগ না হওয়া নিয়ে এখনও কলকাতার রাস্তায় বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন ভাবী শিক্ষক-শিক্ষিকারা। আর এদিকে শিক্ষক-শিক্ষিকার অভাবে রাজ্যে বন্ধ হয়ে যাচ্ছে একের পর এক সরকারি স্কুল। আট বছর আগে উদ্বোধন হলেও এখনও তালাবন্ধ অবস্থাতেই পড়ে পশ্চিম বর্ধমান জেলার কাঁকসার সরকারি বিদ্যালয়।

শিক্ষক-শিক্ষিকার অভাবের জেরে রাজ্যের অনেক বিদ্যালয় ধুঁকছে বলে অভিযোগ। পশ্চিম বর্ধমান জেলার নানান প্রান্তও এর ব্যতিক্রম নয়। সেখানকার কাঁকসায় একটি জুনিয়ার উচ্চ বিদ্যালয় শিক্ষক-শিক্ষিকার অভাবে বন্ধ হতে বসেছে। যদিও কাঁকসার জাটগড়িয়া এলাকায় ঘটা করে সর্বশিক্ষা মিশন জুনিয়ার উচ্চ বিদ্যালয়ের সূচনা করা হয়েছিল। ২০১৩-১৪ সালে ওই স্কুলের দরজা খুললেও কিছুদিন পরেই তাতে তালা পড়ে যায়। কারণ শিক্ষক-শিক্ষিকা নেই।

স্থানীয়দের দাবী, ওই স্কুলের তালাতেও এখন জং পড়ে গিয়েছে। এলাকার ছাত্রছাত্রীদের সুবিধার্থীও স্কুল তৈরি করা হলেও সেই উদ্দেশ্য সফল হয়নি, এমনটাই দাবী বিরোধীদের। এলাকার পড়ুয়াদের অনেক বাধা-বিপত্তি পেরিয়ে এলাকার দূরের স্কুলে যেতে হয়। ছাত্রীদের বিশেষ করে সমস্যার মুখে পড়তে হয় এর জন্য।

এলাকাবাসীরা দাবী জানাচ্ছেন যাতে এই জুনিয়র উচ্চ বিদ্যালয়টি নতুন করে সেজে উঠুক। কাঁকসায় যে একটি জুনিয়র উচ্চ বিদ্যালয় প্রায় ৮ বছর ধরে বন্ধ হয়ে পড়ে রয়েছে, সে বিষয়ে অন্ধকারে জেলার বিদ্যালয় পরিদর্শক (সেকেন্ডারি) সুনীতি সানফুই। তিনি বলেন, “জেলায় কোনও স্কুল বন্ধ রয়েছে বলে আমার অন্তত জানা নেই”।

বিরোধীদের অভিযোগ, রাজ্যের নানান প্রান্তেই এমন চিত্র দেখা যাচ্ছে। পশ্চিম বর্ধমান জেলায় শিক্ষক-শিক্ষিকার অভাবে একাধিক জুনিয়র উচ্চ বিদ্যালয় বন্ধ হতে চলেছে। সেই সমস্ত স্কুল কী আদৌ খুলবে কোনওদিন? এখন সেই প্রশ্নের অপেক্ষায় এলাকাবাসীরা।

Related Articles

Back to top button