রাজ্য

চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রীদের শ্লী’ল’তা’হা’নি’র অভিযোগ রাজ্যের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকের বিরুদ্ধে! গ্রেফতার অভিযুক্ত শিক্ষক

রাজ্যের শিক্ষা ব্যবস্থায় অচলাবস্থা চলছে। তার মধ্যে সরকারি স্কুলের শিক্ষকদের উপর নানা রকম অভিযোগ সামনে আসছে। এবার রাজ্যের প্রাথমিক স্কুলের  চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রীদের শ্লী’ল’তা’হা’নি’র অভিযোগ উঠল শিক্ষকের উপর।

ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলার পাথর প্রতিমা থানা এলাকায় এক অবৈতনিক প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। ছাত্রীদের অভিযোগ, বেশ কয়েকদিন কয়েকজন ছাত্রীদের সঙ্গে নোংরা আচরণ করছিলেন অভিযুক্ত শিক্ষক। ওই শিক্ষক ছাত্রীদের শরীরের বিভিন্ন গোপনাঙ্গে হাত দিতেন বলে জানিয়েছে ছাত্রীরা।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত শিক্ষকের নাম প্রদীপ কামিলা। ওইদিন এক ছাত্রী অভিভাবকের কাছে এই নোংরা ঘটনার কথা জানায়। তারপর দলবদ্ধভাবে স্কুলে এসে ওই শিক্ষককে বেধড়ক মারধর করেন বলে অভিযোগ। এরপর পাথরপ্রতিমা থানায় খবর দিয়ে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন অভিভাবকরা। পুলিশ গ্রেফতার করেছেন অভিযুক্ত শিক্ষককে।

স্থানীয় এক বাসিন্দা বলেন,গ্রামের মহিলারা মিলে ওই মাস্টারের ওপর চড়াও হয়। ওকে মারধর করে চশমা ভেঙে দেওয়া হয়। এরপর থানায় ও পঞ্চায়েতে খবর দেওয়া হয়েছে। বলা হচ্ছে, বাচ্চাদের সঙ্গে মাস্টার নোংরামি করেছিল।’

তবে অভিযুক্ত শিক্ষকের ভাই দাবি করেছেন, তাঁর দাদাকে ষড়যন্ত্র করে ফাঁসানো হচ্ছে। সুবিচারের আশায় তাঁরা উচ্চ আদালতের দ্বারস্থ হবেন। রাজ্য সরকারি স্কুলের শিক্ষকের এমন আচরণে ক্ষুব্ধ অভিভাবক থেকে স্থানীয়রা।

Related Articles

Back to top button