রাজ্য

পণ হিসেবে চাই মোটরবাইক, তা না মেলায় বিয়ের মণ্ডপ থেকে পালাল বর, ‘বিয়ে না হলে আত্মহত্যা করব’, হুমকি পাত্রীর

বিয়ের ঠিক আগের মুহূর্তে পণ হিসেবে মোটরবাইক দাবী করে বসে বর। কিন্তু মেয়ের বাবা জানান যে তিনি তা দিতে পারবেন না। তা শুনেই বিয়ের ঠিক আগেই মণ্ডপ ছেড়ে পালালেন বর।

এই ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের বরাবাঁকিতে। অযোধ্যার মাওয়াইয়ের বাসিন্দা পাত্রের সঙ্গে বিয়ের ঠিক হয় জাহাঙ্গীরাবাদের তরুণীর। গত ২রা ডিসেম্বর বিয়ের আয়োজন করা হয়েছিল। সময় মতোই বরকে নিয়ে বিয়ের মণ্ডপে এসে পৌঁছেছিলেন বরযাত্রীরা। বিয়ে হওয়ার জন্য নিয়ম মতো আংটি বদল এবং ৫ হাজার টাকা আদানপ্রদান হওয়ার কথা ছিল।

কিন্তু তিলকের অনুষ্ঠানের পর হঠাৎই বেঁকে বসেন বর। তিনি সাফ জানান যে পণ হিসেবে একটি মোটরসাইকেল চাই তাঁর। পাত্রীর বাবা করজোড়ে জানান যে তাঁর আর্থিক অবস্থা ভাল নয়। ফলে হবু জামাইকে বাইক দিতে পারবেন না তিনি। এরপরই বেঁকে বসে পাত্রপক্ষ। দু’পক্ষের মধ্যে তুমুল কথা কাটাকাটি হয়। এসবের মধ্যেই বিয়ে না করে বরযাত্রীদের নিয়ে মণ্ডপ ছেড়ে বেরিয়ে যান বর।

এদিকে পাত্রী হুমকি দিয়ে বসেন যে বিয়ে না হলে তিনি আত্মহত্যা করবেন। থানায় খবর দেওয়া হয় পাত্রীপক্ষের তরফে। কিন্ত পাত্রীর বাবার অভিযোগ, থানা থেকে কোনও ব্যবস্থা না নিয়েই তাদের বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়া হয়। পুলিশ উল্টে জানায় যে বর কিছুক্ষণের মধ্যেই ফিরে আসবে।

কিন্তু তা আর হয়নি। এমন সময় পাত্রী জানান, “আমার অন্য কোথাও বিয়ে দিয়ে দেওয়ার জন্য আমি পুলিশকে অনুরোধ করি। নয়তো আমি নিজের জীবন শেষ করে দেব”।

ইতিমধ্যেই এই ঘটনায় পাত্রপক্ষের বিরুদ্ধে থানায় মামলা রুজু করা হয়েছে। পুলিশ এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

Related Articles

Back to top button