সব খবর সবার আগে।

বাংলায় যা হচ্ছে তা স্বাধীন ভারতে কখন‌ও দেখিনি, আমরা হতবাক, চিন্তিত! বঙ্গ হিংসায় মন্তব্য নাড্ডার

বঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে বিরাট ব্যবধানে বিজেপিকে হারানোর পর বাংলা জুড়ে চলছে অশান্তি। তৃণমূলের হাতে আক্রান্ত হচ্ছে বিজেপি – সিপিএম’এর কর্মী সমর্থকরা।

ভোটের ফল ঘোষণার পর থেকেই বাংলা জুড়ে অশান্তির ছবি। চলছে অভিযোগ, পাল্টা অভিযোগের পালা। বাংলার এইরকম উত্তপ্ত পরিস্থিতিতে মঙ্গলবার দু’দিনের জন্য বঙ্গ সফরে এসেছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি। তৃণমূলের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক হিংসার অভিযোগ করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের শপথ গ্রহণের দিন থেকেই দেশজুড়ে বিক্ষোভ কর্মসূচি শুরু করছে বিজেপি। এদিন দুপুরে কলকাতা বিমানবন্দরে নামেন নাড্ডা। সেখান থেকে তিনি অভিযোগ করেন, ‘পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনের পর যে ঘটনার সাক্ষী থাকলাম, তাতে আমরা হতবাক, আমরা চিন্তিত। দেশভাগের সময় এরকম ঘটনার কথা শুনেছিলাম। ভোটের পর স্বাধীন ভারতে আমরা কখনও এরকম ঘটনা দেখিনি।’ একইসঙ্গে তিনি জানান, ‘আমরা মতাদর্শগত লড়াই এবং তৃণমূল কংগ্রেসের কাজকর্মের বিরুদ্ধে লড়াই করতে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। আমরা গণতান্ত্রিকভাবে লড়াই করতে প্রস্তুত।’

আরও পড়ুন- ভোট ফলাফল পরবর্তী হিংসার শিকার বিজেপি কর্মী-সমর্থক, প্রতিবাদে ধর্নায় গেরুয়া শিবির, ফের রাজ্যে নাড্ডা

রবিবার ফল প্রকাশের পর থেকেই রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে রাজনৈতিক হিংসার খবর মিলছে। খোদ তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শান্তি বজায়ের আর্জি জানালেও পরিস্থিতির উন্নতির হয়নি। উলটে ক্রমশ ‘লাগামছাড়া’ হচ্ছে ভোট-পরবর্তী হিংসা।

এদিন রাজ্যে এসেই আক্রান্ত বিজেপি কর্মীদের বাড়িতে যান বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি। তাঁর সঙ্গে ছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায় এবং বিজেপি নেতা রাহুল সিনহা।

বাংলার বর্তমান উত্তপ্ত রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে চিন্তিত প্রধানমন্ত্রীর দফতর‌ও। গতকালই উদ্বেগ প্রকাশ করেছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। উদ্বিগ্ন প্রধানমন্ত্রীও। রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়কে ফোন করে পশ্চিমবঙ্গের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলেছেন স্বয়ং নরেন্দ্র মোদী।

বাংলায় যে ২কোটি ২৮লক্ষ মানুষ বিজেপিকে ভোট দিয়েছেন সেই মানুষগুলোর মানবাধিকার বা গণতান্ত্রিক অধিকার নিয়েও প্রশ্ন তুলেছে বিজেপি l

আরও পড়ুন-তৃণমূলের ভয়ে ঘরছাড়া বিজেপি কর্মীদের ঘরে ফেরালেন মুখপাত্র কুনাল ঘোষ, করালেন মিষ্টিমুখ 

বাংলা উদ্বেগজনক ও অপ্রীতিকর পরিস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী যে যথেষ্ট চিন্তিত তা গতকালই ট্যুইট করে জানিয়েছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়।

You might also like
Comments
Loading...