রাজ্য

ভরতপুর থানার ওসিকে শাসানি হুমায়ুন কবীরের, রুজু করা মামলায় জামিন পেতে আদালতে আত্মসমর্পণ তৃণমূল বিধায়কের

তৃণমূলের প্রতিষ্ঠা দিবস উপলক্ষ্যে কিছুদিন আগেই এক দলীয় সভায় প্রকাশ্যে ভরতপুর থানার ওসি রাজু মুখোপাধ্যায়কে হুমকি দিয়েছেন তৃণমূল বিধায়ক হুমায়ুন কবীর। এই ঘটনায় বিধায়কের বিরুধে স্বতঃপ্রণোদিত মাম্ল রুজু করেন ওই ওসি। সেই মামলায় জামিন পেতে আদালতে ছুটলেন তৃণমূল বিধায়ক। কান্দি মহকুমা আদালতের বিচারক ভাস্কর মজুমদারের এজলাসে আত্মসমর্পণ করলেন হুমায়ুন কবীর।

গত ২৬শে ডিসেম্বর তৃণমূল বিধায়কের বিরুদ্ধে একাধিক জামিনযোগ্য ও জামিন-অযোগ্য ধারায় মামলা দায়ের করেন ভরতপুর থানার ওসি রাজু মুখোপাধ্যায়। তাঁর বিরুদ্ধে ১৬৬, ১৮৯ , ৫০৪, ৫০৫ ও ৫০৬ ধারায় মামলা রুজু করা হয়।

পুলিশের তরফে জানানো  হয়, ১৬৬ ধারায় আইন-শৃঙ্খলাভঙ্গ ও আইন অমান্য, ১৮৯ ধারায় হুমকি দেওয়া, ৫০৪ ধারায় উস্কানি দেওয়া, ৫০৫ ধারায় সরকারি কর্মচারীদের সম্মানহানি এবং ৫০৬ ধারায় অপরাধ করার ইচ্ছা প্রকাশ ও হুমকি দেওয়ার অভিযোগে হুমায়ুন কবীরের বিরুদ্ধে এই মামলাগুলি রুজু করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, কিছুদিন আগে একটি দলীয় কর্মীসভায় সকলের মাঝেই ভরতপুর থানার ওসি রাজু মুখোপাধ্যায়কে হুমকি শানান তৃণমূল বিধায়ক হুমায়ুন কবীর। তিনি বলেন, “টারজানকে ওসি ফোন করেছিল, আমি টারজানকে পরিষ্কার বলে দিয়েছি, তুমি ওসিকে বলো যে, দালালি বন্ধ করতে বলছি যদি ওসি থাকার ইচ্ছে থাকে ভরতপুরে। আর তা না হলে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে তোমাকে এখান থেকে পাততাড়ি গোটাতে বাধ্য করব। থানার সামনে গিয়ে বসব, টেবিলের উপর পা দিয়ে, তখন ঠিক বুঝতে পারবে হুমায়ুন কবির কী জিনিস। এমনিই তখন এখান থেকে কাজ ছেড়ে চলে যাবে”।

তৃণমূল বিধায়কের এমন মন্তব্য রাজ্য রাজনীতিতে ঝড় তুলেছিল। বিরোধী থেকে শুরু করে নানান মহলেই হুমায়ুন কবীরের এমন মন্তব্যের তীব্র নিন্দা করা হয়।

Related Articles

Back to top button