সব খবর সবার আগে।

‘কাজল সিনহার অপূর্ণ স্বপ্ন পূরণ করব’, খড়দহের প্রয়াত তৃণমূল প্রার্থীর স্ত্রীর আশীর্বাদ নিলেন বিজেপি প্রার্থী জয় সাহা

হাতে মাত্র আর কয়েকটা দিন। এরপরই খড়দহ-সহ চার কেন্দ্রে হতে চলেছে উপনির্বাচন। এখন থেকেই ব্যাপক হারে প্রচার চালাচ্ছে তৃণমূল ও বিজেপি, দু’পক্ষই। খড়দহ কেন্দ্র থেকে তৃণমূলের তরফে প্রার্থী হলেন শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। আর বিজেপির তরফের প্রার্থী জয় সাহা।

এই বয়সেও সমানে প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন শোভনদেববাবু। এদিকে পিছিয়ে নেই জয় সাহাও। আজ, রবিবার তিনি গেলেন প্রয়াত তৃণমূল নেতা কাজল সিনহার বাড়ি। তাঁর অকালপ্রয়াণের কারণে এই কেন্দ্রে উপনির্বাচন হচ্ছে। কাজলনবাবুর ছবিতে মাল্যদান করে তাঁর স্ত্রী নন্দিতা সিনহার সঙ্গে দেখা করেন জয়বাবু। উপনির্বাচনের জন্য নন্দিতা দেবীর থেকে থেকে আশীর্বাদ চেয়ে নেন জয় সাহা। বলেন, “কাজল সিনহার স্বপ্ন পূরণ করতে হবে, এই অঙ্গীকার নিয়ে আশীর্বাদ চাইলাম”।

তবে এই সাক্ষাৎকে রাজনৈতিক সৌজন্যতা হিসেবেই দেখছে দুই শিবির। তৃণমূলের তরফে এ নিয়ে কোনও প্রতিক্রিয়া দেওয়া হয়নি। বলে রাখি, একুশের নির্বাচনে এই খড়দহ আসন থেকে জিতেছিলেন তৃণমূল প্রার্থী কাজল সিনহা। আর বিজেপির তরফে প্রার্থী ছিলেন শীলভদ্র দত্ত। কিন্তু নির্বাচনের ফলাফল বেরোনোর আগে করোনায় মারা যান কাজল সিনহা। এই কারণে এই কেন্দ্র থেকে উপনির্বাচন হচ্ছে।

তবে উপনির্বাচনে শীলভদ্র আর বিজেপির তরফে ভোটের টিকিট পাননি। আবার একটি সূত্র অনুযায়ী, তিনি নিজেই নির্বাচনে লড়তে চাননি। এরপর খড়দহ কেন্দ্রে বিজেপির তরফে প্রার্থী করা হয় স্থানীয় যুব নেতা জয় সাহাকে। বিজেপি প্রার্থীর জয় নিয়ে প্রত্যয়ী বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং মন্তব্য করেছেন, “খড়দহে ৮০ বছরের বৃদ্ধের সঙ্গে ৩২ বছরের ভূমিপুত্রের লড়াই। এলাকার মানুষ জয়কেই নির্বাচিত করবেন। আমি জয়ের জেতার ব্যাপারে ২০০ শতাংশ নিশ্চিত”।

এদিকে আবার জয় সাহা শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়কে ‘বহিরাগত’  আখ্যা দিয়েছেন। তাঁর কথায়, শোভনদেব বাবু খড়দহ থেকে ৩০ কিলোমিটার দূরে থাকেন। তিনি এই কেন্দ্র থেকে জিতলে ফের ফিরে যাবেন। আর মানুষ অ্যাপয়েন্টমেন্ট নিয়েও তাঁর দেখা পাবেন না। এই কারণে ভূমিপুত্র হিসাবে তাঁকে জয়যুক্ত করার আহ্বান জানান জয় সাহা।

তবে রাজনৈতিক মহলের একাংশ বলছে, এই লড়াইটা বিজেপির জন্য মোটেই সহজ নয়। এমনিতে উপনির্বাচন, আর এর উপর খড়দহ কেন্দ্রে আগেই রাজ্যের শাসক দল এগিয়ে ছিল। তাই শোভনদেবের দিকেই পাল্লা ভারি রয়েছে বলে মত ওয়াকিবহাল মহলের।

You might also like
Comments
Loading...