রাজ্য

নাম না করে শুভেন্দুকে‌ তীব্র আক্রমণ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের! ‘মমতা না থাকলে পুরসভার কাছে আলু বিক্রি করতিস’ তীব্র কটাক্ষ তাঁর

তৃণমূল-শুভেন্দু অধিকারী সংঘাতে বেজায় গরম বঙ্গ রাজনীতি। কেউ সম্পর্কের শীতলতা কাটানোর চেষ্টা করছেন তো কেউ দুই দিকের সম্পর্কের উত্তাপ আর‌‌ও বাড়াচ্ছেন। ফের শুভেন্দু অধিকারীকে (shubhendu Adhikari) নিজের নিশানায় নিলেন তৃণমূল নেতা কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় (Kalyan Banerjee)।

নাম না করে বৃহস্পতিবার একটি অনুষ্ঠানে তিনি কটাক্ষ‌ করেন, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) না থাকলে পুরসভার কাছে আলু বিক্রি করতিস।’ হাতে গোনা ক’দিন আগেই কল্যাণ শুভেন্দু কে তীব্র আক্রমণ শানিয়ে বলেছিলেন, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ছিলেন বলেই নন্দীগ্রামে আন্দোলন হয়েছিল। আজকে অনেক বড় হতে পারেন। কিন্তু বড় হলেন কার ছায়ায়, সেটাই সবথেকে বড় ব্যাপার।’

গতকাল বৃহস্পতিবার আরও চাঁচাছোলা ভাষায় নাম না নিয়ে শুভেন্দুকে নিশানা করেছেন শ্রীরামপুরের এই তৃণমূল সাংসদ। নিজের বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘হিসাবটা আমরা বুঝে নেব। চলে যা বিজেপিতে। কোনও অসুবিধা নেই। যাবি কংগ্রেসে, চলে যা। তাতেও কোনও অসুবিধা নেই। সিপিএমে যাবি, চলে যা। তাতেও কোনও অসুবিধা নেই। দাদার অনুগামী হলে দাদার সঙ্গে চলে যা। তৃণমূল কংগ্রেস করে বেইমানি করলে বাড়ি ঢুকতে দেব না।’

একই সঙ্গে তাঁর হুঁশিয়ারি, দেখি কত বড়! দেখতে চাই কত হিম্মত রয়েছে! বাংলার মাটিতে দেখতে চাই, কোন দাদার কত অনুগামী? লড়াই করতে এসেছি। লড়ে যাব। লড়াইয়ের ময়দানে এক ইঞ্চিও ছাড়ব না। বেইমানদের আগামী দিনে বুঝিয়ে দেব।

তবে নিজের কথাবার্তায় কোন‌ও লাগাম টানেনি কল্যাণ। সোজা কথায় বলেন, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নামে গাছের তলায় বড় হয়েছিস। ৪টে মন্ত্রিত্ব পেয়েছিস, ৪ খানা চেয়ারে আছিস। কত পেট্রোল পাম্প করেছিস! মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় না থাকলে মিউনিসিপ্যালিটিতে আলু বিক্রি করতিস রে, আলু বিক্রি করতিস।’

Related Articles

Back to top button