রাজ্য

‘আপনাদের বিরুদ্ধে CBI তদন্ত করব’, হাইকোর্টের নজিরবিহীন তোপের মুখে SSC, তথ্য জমা না দিলে CISF দিয়ে অফিস ঘেরাওয়ের নির্দেশ!

স্কুলে চতুর্থ শ্রেণীর কর্মী নিয়োগের মামলায় কলকাতা হাইকোর্টের তীব্র তোপের মুখে পড়ল স্কুল সার্ভিস কমিশন। আজ, বুধবার সকালে কলকাতা হাইকোর্টের তরফে বেস্বহ কড়া ভাষাতেই জানানো হয় যে জরুরি তথ্য জমা না করতে পারলে, আরও কড়া ব্যস্থা নেওয়া হবে।

এও জানানো হয়েছে যে এই তথ্য জমা দেওয়ার জন্য কোনও বাড়তি সময় দেওয়া হবে না স্কুল সার্ভিস কমিশনকে। এও জানানো হয়েছে যে প্রয়োজনে সিবিআই, সিআইসিএফ, আইবিকে দিয়ে তাদের অফিস ঘেরাও করানো হবে।

২০১৬ সালে চতুর্থ শ্রেণির কর্মী নিয়োগের যে সুপারিশ করেছিল রাজ্য সরকার, তাতে একাধিক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। পরীক্ষা ও ইন্টারভিউয়ের পর প্যানেল তৈরি করে দেয় কমিশন। অভিযোগ ওঠে, ২০১৯ সালে প্যানেলের মেয়াদ শেষ হয়ে গেলেও বেআইনিভাবে নিয়োগ করা হয়েছে। ২৫ জনকে নিয়োগের বিষয়ে হাইকোর্টে দায়ের করা হয় মামলা।

এই মামলার শুনানির সময় বিস্ময় প্রকাশ করেছিল হাইকোর্ট। মঙ্গলবার হাইকোর্ট নির্দেশ দিয়েছিল, বুধবার সকাল ১০ টা ৩০ মিনিটের মধ্যে কমিশনের সচিবকে আদালতের সামনে আসতে হবে। সঙ্গে আনতে হবে প্রয়োজনীয় নথি। নিয়োগ প্রক্রিয়া কোনও অনিয়ম বা দুর্নীতি হয়েছে, সেই বিষয়ে সচিবকে ব্যাখ্যা দেওয়ার নির্দেশ দেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়।

সেই অনুযায়ীই আজ, বুধবার আদালতে আসেন কমিশনের সচিব। এরপরই হাইকোর্টের তরফে অসন্তোষ প্রকাশ করা হয়। বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের মতে, সমস্ত তথ্য ভালোভাবে খতিয়ে দেওয়া হবে। এই নিয়োগ প্রক্রিয়ার পিছনে কে রয়েছে তা খতিয়ে দেখা হবে।

বিচারপতি এও জানান যে আজ দুপুর তিনটের মধ্যে যদি তথ্য জমা না দেওয়া হয়, তাহলে কমিশনের কর্মীদের বেরোতে দেওয়া হবে না। কোনও আঞ্চলিক অফিসের সঙ্গে যোগাযোগ করতে দেওয়া হবে না। এই বিষয় নিয়ে রাজ্য সরকারের মতামত চায় হাইকোর্ট। হাইকোর্ট যে সিবিসি তদন্তের হুঁশিয়ারি দিয়েছিল, সেই প্রেক্ষিতে রাজ্যের তরফে উচ্চক্ষমতা সম্পন্ন কমিটি গঠন করে তদন্ত চালানোর আর্জি জানানো হয়।

Related Articles

Back to top button