রাজ্য

WB Election 2021: ‘ঘরে সবার মা-বোন আছে, ভোটটা ভেবে দিবি’, কৌশানির ভিডিও ঘিরে বিতর্ক

রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে কৃষ্ণনগর উত্তর থেকে তৃণমূলের হয়ে ভোটে দাঁড়িয়েছেন অভিনেত্রী কৌশানি মুখোপাধ্যায়। জোরদার প্রচারও চালাচ্ছেন তিনি। এ প্রচার করার সময়েরই তাঁর একটি ভিডিও বেশ ভাইরাল হয়েছে যা নিয়ে বিতর্ক হয়েছে রাজ্য রাজনীতিতে। তবে কৌশানির দাবী, ভিডিওটির অল্প অংশ ছড়িয়ে তাঁকে বিতর্কিত করার চেষ্টা করা হচ্ছে।

কৃষ্ণনগর উত্তরের বিজেপি প্রার্থী হলেন মুকুল রায়। কৌশানির প্রতিদ্বন্দ্বী তিনি। তাঁর ‘মুকুল রায়’ নামের ফেসবুক পেজ থেকে কৌশানির একটি ভিডিও শেয়ার করা হয়েছে। এই ভিডিওতে ভোট প্রচারের সময় কৌশানিকে বলতে শোনা গিয়েছে, “ঘরে সবার মা-বোন আছে, ভোটটা ভেবে দিবি”। এই ভিডিওই ছড়িয়ে পড়েছে গোটা সোশ্যাল মিদিয়াক জুড়ে।

আরও পড়ুন- ‘গোড়ালির কাছে অ্যাঙ্কেল ভেঙে গেছে’, সেই পা দোলাচ্ছেন মমতা! দেখুন পর্দাফাঁস ভিডিও

এই বিষয়ে কৌশানির দাবী, তিনি যে অর্থে এই কথা বলেছেন তার ভুল ব্যাখ্যা করেছে বিজেপি। অন্যদিকে আবার মুকুল রায়ের দাবী, এটি তাঁর অফিশিয়াল পেজ নয়। তা তিনি এই নিয়ে কোনও মন্তব্য করবেন না। তবে বিজেপির তরফে এই ভিডিও নিয়ে চূড়ান্ত সমালোচনা করা হয়েছে। তাদের দাবী, ভোট পাওয়ার জন্য মানুষকে ভয় দেখাচ্ছে তৃণমূল।

এই ভিডিও ভাইরাল হতেই ফেসবুক লাইভে এসে এই বিষয়টি নিয়ে কথা বলেন কৌশানি। তাঁর দাবী, বিজেপির আইটি সেল এই কাজ করছে। তিনি বলেন, “মা বোনেরা আছে, ভোটটা ভেবে দেবেন, এই কথাটা আমি হুমকির সুরে বলিনি। ইচ্ছা করে অন্যভাবে এটা ছড়ানো হচ্ছে। আমি আমার টিমকে বলব, পুরো ভিডিওটি যাতে তারা প্রকাশ করেন। সাধারণ মানুষ যাতে পুরোটা দেখতে পান”।

এই বিষয়ে উত্তরপ্রদেশের হাথরাসের ঘটনার উদাহরণ দিয়ে কৌশানি বলে, “কেন্দ্রীয় সরকারের হিসাব অনুসারে পশ্চিমবঙ্গ নারীদের জন্য সবচেয়ে সুরক্ষিত রাজ্য। একদিকে যখন বিজেপিশাসিত রাজ্যে হাথরসের মতো ঘটনা ঘটছে, তখন পশ্চিমবঙ্গে নারীরা নিরাপদে আছেন”। এই বিষয়টিই সাধারণ মানুষের কাছে তুলে ধরতে চেয়েছিলেন বলে দাবি করেছেন তিনি।

আরও পড়ুন- নন্দীগ্রাম তো হল, এবার অন্য কোন আসনে প্রার্থী হচ্ছেন মমতা?

রাজারহাট-গোপালপুর কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী শমীক ভট্টাচার্য এ নিয়ে তৃণমূলকে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি। তিনি বলেন, “আগে দলের নেতারা বুঝেছিলেন ভোটের ফল কী হবে। এখন নবাগতরাও বুঝতে পেরেছেন কী ফল হতে চলেছে। এটা তারই বহিঃপ্রকাশ”।

Related Articles

Back to top button