সব খবর সবার আগে।

লকডাউনের তিনমাস পর বুধবার ফের নবান্ন সভাঘরে সর্বদল বৈঠকের ডাক মুখ্যমন্ত্রীর

রাজ্যের করোনা পরিস্হিতি নিয়ে পরামর্শ চাইতে আবার সর্বদলীয় বৈঠকের ডাক দিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রসঙ্গত এর আগে লকডাউন শুরুর সময় বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছিল। বুধবার বিকেলে নবান্ন সভাঘরে পুনরায় দ্বিতীয় বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছে। ওই বৈঠকে সমস্ত দলের নেতা-নেত্রীদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। এমনকি যারা বিধানসভায় প্রতিনিধিত্ব করেন না তাদেরও আমন্ত্রণ রয়েছে এই বৈঠকে। তবে এবারের সর্বদল বৈঠক যে শাসকদলের প্রতি বিরোধীদের অভিযোগেই পরিপূর্ণ থাকবে সে বিষয় আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা।

এর আগে লকডাউন শুরুর সময় সর্বদলীয় বৈঠকের আয়োজন করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানে হাজির ছিলেন সমস্ত রাজনৈতিক দলই। করোনা মোকাবিলায় রাজ্য সরকারের পাশে থাকার এবং রাজ্য সরকারের সিদ্ধান্তের ওপর সম্পূর্ণ আস্থা রাখার কথা জানিয়েছিলেন তারা। কিন্তু লকডাউন শুরুর পরিস্হিতি এবং বর্তমান পরিস্হিতির মধ্যে অনেক তফাৎ এসেছে। এখন বিরোধী পক্ষ একরাশ অভিযোগ নিয়ে নবান্নে উপস্থিত থাকবেন।

এই বৈঠক প্রথমে বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘরে ডাকার প্রস্তাব দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু তাঁর ঘরে এতো লোক আসলে সামাজিক দূরত্ব বিধি পালন করা অসম্ভব হয়ে পড়বে। তাই নবান্নের সভাঘরে স্থানান্তরিত করা হয় বৈঠক।

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে বুধবারের বৈঠক অভিযোগ এবং দোষারোপে উত্তপ্ত হয়ে উঠতে পারে। লকডাউনের পর থেকে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন বিষয় নিয়ে অভিযোগ তুলেছেন বিরোধীরা। কখনো ত্রাণ বিতরণে বাধা আবার কখনো রেশন দুর্নীতি। এই সকল বিষয়ে বুধবার অশান্ত হয়ে উঠতে পারে সভাঘর এবং এই পরিস্হিতিকে সামাল দিতে বেশ মুশকিলে পড়তে হতে পারে রাজ্য সরকারকে।

You might also like
Leave a Comment