রাজ্য

শারদীয়ার মঞ্চেও রাজনীতি মমতার! ‘আপনারা যত বেশি গাল দেবেন, তত বেশি উন্নয়ন করব’, বিজেপির নাম না করেই চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী

গতকাল, রবিবার নজরুল মঞ্চ থেকে ‘জাগো বাংলা’র (Jaago Bangla) উৎসব সংখ্যা প্রকাশ অনুষ্ঠান ছিল। এই অনুষ্ঠান থেকেই নাম না করেই বিজেপিকে তুমুল তোপ দাগলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। বললেন, “আমাদের গাল দিলে কিছু যায় আসে না। যারা এগুলো করছেন, বেশি করে করুন আর শান্তিতে ঘুমোন। আমরা প্রতিহিংসাপরায়ণ নই। আর আপনারা যত বেশি তরজা করবেন, আমরা উন্নয়ন তত বেশি করব”।

বাঙালির সবথেকে বড় উৎসব দুর্গাপুজোকে হেরিটেজ তকমা দিয়েছে ইউনেস্কো। সেই কারণে চলতি মাসের পয়লা তারিখ থেকেই শুরু হয়ে গিয়েছে উদযাপন। এখন মণ্ডপে মণ্ডপে চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি। অনেক পুজো মণ্ডপই এখন আমজনতার জন্য খুলে গিয়েছে। এই কারণে মহালয়ার দিনই পুজোর গান ও দলীয় মুখপত্রের বিশেষ সংখ্যা প্রকাশের জন্য বেছে নেয় তৃণমূল। এদিন নজরুল মঞ্চ থেকে ‘বাংলার গান, উৎসবের গান’ নামে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অ্যালবাম প্রকাশিত হয়। সেই এছাড়াও, ‘জাগো বাংলা’র উৎসব সংখ্যার উদ্বোধন করেন মমতা।

এদিন অনুষ্ঠান মঞ্চে বক্তৃতা রাখতে গিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “ইদানিং লক্ষ্য করছি, নিজস্ব মতামত যদি দিই তা নিয়েও বিকৃত করা হচ্ছে। ‘চায়ে পে চর্চা’ হোনে সে বাত নেহি হোতা! যদি বলা হয়, নিজের পায়ে দাঁড়াও, যেমন ‘কাঁচা বাদাম পাকা বাদামে’র মতো কত গান গেয়েছেন, শোনেন নি? মানুষ সমর্থন না করলে এগুলো এত জনপ্রিয় হল কী করে? ‘পাপ্পু দ্য গ্রেট’রা যখন যা মনে হচ্ছে, তাই বলে। চন্দ্র, সূর্য, গ্রহ, তারার মতো এজেন্সি তাদের মাথাতেও বসে আছে। কেউ ধোয়া তুলসীপাতা নয়। ওদের জন্য তোলা থাকল আমার ‘টাক ডুমা ডুম ডুম’ গানটি”।

তাঁর সংযোজন, “এ মাটির কারও নামে বদনাম করলে আমার রাগ হয়। বাংলার নামে বদনাম করলে রাগ হয়। বদলা নয়, বদল চাই বলেছিলাম বলেই কাউকে অ্যারেস্ট করিনি ৩৪ বছরের”।

দুর্গাপুজোকে ইউনেস্কোর হেরিটেজ তকমা দেওয়া নিয়েও বিজেপিকে কটাক্ষ করেন মমতা। তিনি বলেন, “মার্চে জার্মানিতে দুর্গাপুজোকে হেরিটেজের পুরস্কার দেওয়া হবে। আর যারা এসব নিয়ে তরজা করছেন, করুন। আমরা উন্নয়ন করি। সেটাই আমাদের কাজ। যত তরজা করবেন, তত আমাদের উন্নয়নের কাজ এগোবে”।

Related Articles

Back to top button