রাজ্য

‘শুধু টাকা আর ক্ষমতার খেলা চলছে’, মহারাষ্ট্রের রাজনইতিকি সংকটে উদ্ধব ঠাকরের পাশে দাঁড়িয়ে বিজেপিকে তুলোধোনা মমতার

মহারাষ্ট্রের (Maharashtra) রাজনীতিতে এখন টালমাটাল অবস্থা। ভাঙনের মুখে পড়েছে শিবসেনা (Shiv Sena) সরকার। জোটসঙ্গী বিধায়করা আদৌ কখন কে কোন দলে চলে যাবেন, তা নিয়ে বেশ ডামাডোলের পরিবেশ তৈরি হয়েছে। এমন আবহে এবার মহারাষ্ট্র সরকারের পাশে দাঁড়িয়ে বিজেপিকে (BJP) কার্যত তুলোধোনা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)।

আজ, বৃহস্পতিবার নবান্নে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি বলেন, “টাকা আর ক্ষমতার খেলা চলছে। সম্পূর্ণ অনৈতিকভাবে মহারাষ্ট্র সরকারকে উৎখাত করার চেষ্টা হচ্ছে। বুলডোজিং চলছে। মনে রাখবেন, আপনাদের সঙ্গেও এরকম হতে পারে”।

শিবসেনা সরকারের কাছে এখন যেন অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখাই একটা বড় চ্যালেঞ্জ এখন। মন্ত্রী একনাথ শিন্ডে এখন প্রায় ৪০ জন বিধায়কদের নিয়ে বিদ্রোহ ঘোষণা করেছেন। প্রথমে সুরাটের হোটেলে থাকলেও, এখন তারা রয়েছেন বিজেপি শাসিত রাজ্য অসমের গুয়াহাটিতে। যদিও বিরোধীদের দাবী, শিন্ডে ও তাঁর অনুগামীদের নাকি বিজেপি হাইজ্যাক করেছে। তবে সব মিলিয়ে এখন চাপের মুখে মহারাষ্ট্র সরকার।

এমন পরিস্থিতিতে শিবসেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউত জানান যে শিবসেনা মহারাষ্ট্রের সরকার থেকে সরে আসতে রাজি। কিন্তু বিদ্রোহী বিধায়করা যেন ২৪ ঘণ্টার মধ্যে মুম্বই ফিরে আসেন। অন্যদিকে আবার এনসিপি নেতা জয়ন্ত পাটিল জানিয়েছেন যে তাঁরা উদ্ধব ঠাকরের পাশেই রয়েছেন। তাঁর কথায়, “মহারাষ্ট্র বিকাশ আগাড়ি মহারাষ্ট্র্রের উন্নতি ও কল্যাণের জন্য তৈরি হয়েছিল। আমরা শেষ পর্যন্ত উদ্ধব ঠাকরের পাশে রয়েছি”।

এবার এ নিয়ে আজ, বৃহস্পতিবার নবান্নে বিজেপির বিরুদ্ধে মুখ খুললেন মমতা। তিনি বলেন, “মহারাষ্ট্রে যা ঘটছে, তা দুর্ভাগ্যজনক। গণতান্ত্রিক কাঠামো দুর্বল করার চেষ্টা চলছে। টাকা দিয়ে, ক্ষমতা দিয়ে খেলা চলছে। বিধায়ক কেনাবেচা করা হচ্ছে। আগেও দু-একটি রাজ্যে এভাবেই ক্ষমতা হাতিয়েছে বিজেপি। ক্ষমতায় থাকাই যেন অভ্যাসে দাঁড়িয়েছে। গণতান্ত্রিক পদ্ধতিকে বুলডোজ করা হচ্ছে। আমি মনে করি, উদ্ধব ঠাকরের ন্যায় বিচার পাওয়া উচিত”।

বিজেপিকে সতর্ক করার সুরেই মমতা হুঁশিয়ারি শানিয়ে বলেন, “মনে রাখবেন, আজ আপনারা যা করছেন, কাল আপনাদের সঙ্গেও তা হতে পারে। আপনাদের দলও কেউ ভাঙাতে পারে”।

Related Articles

Back to top button