সব খবর সবার আগে।

সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশ দিলেও বিধানসভা নির্বাচনের আগে কলকাতার পুরসভা ভোটে ‘না’  রাজ্য সরকার

ইতিমধ্যেই সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশ দিয়েছে রাজ্যে পুরসভা ভোট করতে। কিন্তু সুপ্রিমকোর্টে সেই নির্দেশ কে উপেক্ষা করছে রাজ্য সরকার। রাজ্যে আগামী বিধানসভা ভোটের আগে পুরসভার ভোট করতে আগ্রহী নয় মমতা প্রশাসন। সেক্ষেত্রে বর্তমান প্রশাসকমণ্ডলীর বদলে শীর্ষ আদালতের আগেই পুরসভায় রাজ্যের তরফে ‘স্পেশ্যাল ইনডিপেন্ডেন্ট অফিসার’ নিয়োগের ভাবনা শুরু করেছে নবান্ন। আর তাই কলকাতা পুরসভার দায়িত্ব রাজ্যের ‘বিশ্বস্ত ও ভরসাযোগ্য’ কোনও আইএএস অফিসারের হাতে তুলে দিতে চাইছে প্রশাসনের শীর্ষমহল।
আসছে ১৭ই ডিসেম্বর শীর্ষ আদালতের ডিভিশন বেঞ্চ পুরভোটের নির্ঘণ্ট জানানোর যে নির্দেশ দিয়েছে, তার আগেই এই প্রক্রিয়া শুরু হবে। পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম শনিবার জানান, “করোনা সংক্রমণের সর্বশেষ পরিস্থিতির সঙ্গে ভোটার তালিকা সংশোধনের চলতি কর্মসূচি, দু’টি বিষয়ই রাজ্য নির্বাচন কমিশন এবং সুপ্রিম কোর্টকে জানানো হবে।”
করোনা পরিস্থিতি চলতি বছর স্থগিত হয়েছে পুরভোট। এ নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের তিন বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ সাতদিনের মধ্যে রাজ্য নির্বাচন কমিশনকে ভোটের নির্ঘণ্ট জানাতে নির্দেশ দিয়েছে। বিদায়ী মেয়র ফিরহাদ হাকিম ও বিদায়ী ডেপুটি মেয়র অতীন ঘোষের মত শাসকদলের একটা বড় অংশই মহানগরে এখনই পুরভোট  গ্রহণের পক্ষে।  কিন্তু ভোটকুশলী প্রশান্ত কিশোর ও শহরের প্রভাবশালী বিধায়কদের একাংশ বিধানসভা ভোটের আগে পুরনির্বাচনের বিরুদ্ধে। আত্মবিশ্বাসী ফিরহাদদের যুক্তি, এখন নির্বিঘ্নে ভোট হলেও ১৪৪টি ওয়ার্ডের মধ্যে ১০০’র বেশি আসনে নিশ্চিত জিতবে তৃণমূল, যা বিধানসভা নির্বাচনে শাসকদলের পালে হাওয়া লাগাতে যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ ফ্যাক্টর। বিষয়টি মুখ্যমন্ত্রীকেও জানিয়েছেন ভোটমুখী নেতারা।
You might also like
Comments
Loading...