রাজ্য

দিলীপের সঙ্গে সম্পর্কের অবনতির জল্পনা ওড়ালেন মুকুল, দিলেন সঙ্ঘবদ্ধভাবে লড়ার ইঙ্গিত

আসন্ন ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনে একে অপরের সঙ্গে থেকেই লড়াই করবেন বলে জানালেন মুকুল রায়। সম্প্রতি খবরে উঠে এসেছিল দিলীপ-মুকুলের সম্পর্কের তীব্র অবনতির কথা। যা নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই জোর চর্চা চলেছে রাজনৈতিক মহলে। দুই হেভিওয়েট নেতার দ্বন্দ্বের জল্পনার অবসান ঘটালেন এবার খোদ বিজেপি নেতা মুকুল রায়। কৈলাস বিজয়বর্গীয়র সঙ্গে সাক্ষাতের পর মুকুল রায় বললেন, “কোনও দ্বন্দ্ব নেই দিলীপের সঙ্গে। গোটাটাই সকলের কল্পনা।”

সোমবার রাজ্যের দায়িত্বপ্রাপ্ত বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয়র সঙ্গে দেখা করেন মুকুল। এরপরই তৃণমূল ত্যাগী এই বিজেপি নেতা স্পষ্টভাবে বলেন, “দলের মধ্যে কোনও বিভাজন নেই। দিলীপের সঙ্গে কোনও দ্বন্দ্ব নেই। বিভিন্ন রাজনৈতিক দল নিজেদের স্বার্থে অপপ্রচার করছে।” সেই সঙ্গে আত্মবিশ্বাসী সুরে বলেন, একুশের নির্বাচনে জোট বেঁধেই লড়বে বিজেপি।

বঙ্গ বিজেপির অভ্যন্তরে যে অশান্তির আবহ তৈরি হয়েছে, তা নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই জল্পনা চলছিল। দিলীপ ঘোষের বিভিন্ন মন্তব্যেও তৈরি হচ্ছিল ফাটল। তার বিরুদ্ধে দিল্লিতে জমা পরছিল একের পর এক অভিযোগ। বিষয়টি বিজেপি হাইকমান্ডের কানে পৌঁছায়। তারপর আর সময় নষ্ট করেননি বিজেপি নেতারা। বিজেপি সভাপতি জেপি নড্ডা দ্রুত ডেকে পাঠান দিলীপ ঘোষকে।

এরপরই রবিবার রাজ্যের নেতাদের সঙ্গে দুটি গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক করে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। এদিন রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষের সঙ্গে কথা বলেন জেপি নাড্ডা। সেখানে বাংলায় তৃণমূলের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সবাইকে সঙ্গে নিয়ে চলার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে দিলীপকে। একার জোরে কাজ করার কথা বললে অন্যরা রুষ্ট হতে পারে বলে সংযত হতে বলা হয়েছে বিজেপি সাংসদকে। এপ্রসঙ্গে এদিন মুকুল রায় বলেন, “এটা সর্বভারতীয় দল, সেইদলের সর্বভারতীয় নেতৃত্ব এমন বার্তাই দেন।”

Related Articles

Back to top button