রাজ্য

উত্তরবঙ্গে ভারী বৃষ্টি, দক্ষিণে বাড়ছে রোদের তেজ, কবে আদৌ বৃষ্টির দেখা মিলবে শহরে?

জুন মাস শেষ হতে চলল কিন্তু দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টি সেভাবে নেই বললেই চলে। আর এই মাসে ভারী বৃষ্টি আর হবে না দক্ষিণবঙ্গে, তেমনটাই জানাচ্ছে আবহাওয়া দফতর। যদিও উত্তরে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। জুলাইয়ের আগে দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির হার বাড়বে না।

দক্ষিণবঙ্গে দেরিতে ঢুকেছে বর্ষা। তাই বৃষ্টির ঘাটতি থাকবে জুন মাসে। কলকাতায় বৃষ্টির ঘাটতি ৬৬ শতাংশ। দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির ঘাটতি রয়েছে ৪৫ শতাংশ। উত্তরবঙ্গ এবং সিকিমে অতিরিক্ত বৃষ্টির পরিমাণ এখনও পর্যন্ত ৫১ শতাংশ। উত্তরবঙ্গে আজও ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির সতর্কতা জারি করা হয়েছে। দক্ষিণবঙ্গে হালকা মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। তবে বৃষ্টি কমে গেলে আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তি ফের বাড়বে।

মঙ্গল এবং বুধবার ফের উত্তরবঙ্গে অতি ভারী বৃষ্টি হতে পারে। দার্জিলিং, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার এবং জলপাইগুড়ি জেলায় মঙ্গলবার কয়েক পশলা ভারি বৃষ্টি হতে পারে। উত্তরবঙ্গের বাকি জেলায় অতিভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার এবং জলপাইগুড়ি জেলায় মঙ্গলবার থেকে টানা অতি ভারী বৃষ্টির সর্তকতা জারি করা হয়েছে। বাড়তে পারে নদীর জলস্তর। পার্বত্য এলাকায় ধস নামার সম্ভাবনা রয়েছে। বিপর্যস্ত হতে পারে উত্তরের জনজীবন। 

পূর্বাভাস অনুযায়ী আগামী ২৪ ঘণ্টায় দক্ষিণবঙ্গের সমস্ত জেলাতেই বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টি হবে বলে জানা যাচ্ছে। আজ দিনভর আকাশ মোটামুটি মেঘলাই থাকবে। মঙ্গল ও বুধবার অপেক্ষাকৃত বেশি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে দক্ষিণ ২৪ পরগণা, পূর্ব মেদিনীপুর, পশ্চিম মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রামে। হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হলেও, এক নাগাড়ে বৃষ্টির কোনও সম্ভাবনা নেই।

এদিন কলকাতার আকাশ আংশিক মেঘলা থাকবে। তবে রোদও দেখা যাবে মাঝেমধ্যেই। বাতাসে জলীয় বাষ্পের কারণে আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তি বজায় থাকবে। শহরে আপাতত ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা তেমন নেই।  

আজ, মঙ্গলবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২৭.৭ ডিগ্রি। গতকাল, সোমবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩২.১ ডিগ্রি থেকে প্রায় ২ ডিগ্রি বেড়ে ৩৪.৬ ডিগ্রি হয়। বাতাসে জলীয়বাষ্পের সর্বোচ্চ পরিমাণ ছিল ৯০ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় কলকাতায় বৃষ্টি হয়নি।

Related Articles

Back to top button