রাজ্য

এবারও মিলল না রক্ষাকবচ, ফের ডিভিশন বেঞ্চ ফেরাল পার্থকে, প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রীর মামলা থেকে সরে গেলেন বিচারপতি হরিশ ট্যান্ডন ও সামন্ত

এসএসসি নিয়পগ দুর্নীতি মামলায় গতকাল, বুধবারই সিবিআই দফতরে হাজিরা দিয়েছিলেন প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। গতকাল এই নিয়ে তিনি ডিভিশন বেঞ্চে গেলেও, কোনও লাভ হয়নি। এই কারণে, আজ, বৃহস্পতিবার ফের হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। কিন্তু এবারও কোনও ফল মিলল না।

গতকাল হাইকোর্ট থেকে হতাশ হয়ে ফেরার পর আজ বেশ আশা নিয়েই ডিভিশন বেঞ্চে গিয়েছিলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। গতকালের প্রক্রিয়াতে ত্রুটি থাকার কারণে আজ সবকিছু ঠিকঠাক করেই হাইকোর্টে উপস্থিত হন তিনি। মনে করা হচ্ছিল যে তিনি হয়ত হাইকোর্টের দ্বারা রক্ষাকবচ পাবেন। কিন্তু তা আর হল না।

এদিন পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের মামলা থেকে সরে দাঁড়ান বিচারপতি হরিশ ট্যান্ডন ও বিচারপতি রবীন্দ্রনাথ সামন্ত। এর জেরে ফের হতাশ হয়েই ফিরতে হলে তৃণমূল নেতাকে। এরপর তাঁর এই মামলা কোন বিচারপতি বেঞ্চে উঠবে, তা স্থির করবেন প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তব।

সম্প্রতি, এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় নাম জড়ায় পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের। এই মামলায় সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়। হাইকোর্টের সিঙ্গল বেঞ্চের এই রায় ডিভিশন বেঞ্চে চ্যালেঞ্জ জানানো হলে ডিভিশন বেঞ্চ সিঙ্গল বেঞ্চের রায়ই বহাল রাখে ও সিঙ্গল বেঞ্চে এই মামলা ফিরিয়ে দেওয়া হয়।

এরপর গতকাল, বুধবার বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় নির্দেশ দেন যে এদিন সন্ধ্যে ৬টার মধ্যেই পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে সিবিআই দফতরে হাজিরা দিতে হবে। সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে পার্থর আইনজীবী ডিভিশন বেঞ্চে গেলে পদ্ধতিতে ত্রুটি থাকার কারণে ডিভিশন বেঞ্চ সেই মামলা শুনতে রাজিই হয় না। এর জেরে শেষ পর্যন্ত তৃণমূল নেতাকে হাজিরা দিতেই হয় সিবিআই দফতরে।

গতকাল, নির্ধারিত সময়ের পূর্বেই নিজাম প্যালেসে হাজিরা দেন প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী। সিবিআই দফতরে এদিন তাঁকে সাড়ে তিন ঘণ্টা ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। সূত্রের খবর অনুযায়ী, বর্তমানে উপদেষ্টা কমিটির বয়ানের সঙ্গে পার্থর বক্তব্য মিলিয়ে দেখছে সিবিআই। সেই বয়ানে অসঙ্গতি থাকলে ফের তাদের জেরার মুখে পড়তে হবে। এই কারণেই হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন পার্থ। কিন্তু ফের খালি হাতেই ফিরতে হল তাঁকে।

Related Articles

Back to top button