রাজ্য

২৮ বছর বয়সে ২৪ জন তরুণীকে পরিচয় ভাঁড়িয়ে বিয়ে, টাকা-সোনা লুঠ করে চম্পট, অবশেষে পুলিশের জালে আটক বারাসাতের ‘গুণধর’

যুবকের বয়স মাত্র ২৮ বছর। আর এই বয়সেই কলকাতার এই যুবকের কীর্তি শুনলে চক্ষু চড়কগাছ হওয়ার জোগাড় সকলের। পরিচয় ভাঁড়িয়ে মাত্র ২৮ বছর বয়সে ২৪ জন তরুণীকে বিয়ে করেছে সে। তাদের থেকে টাকা, সোনা লুঠ করার অপরাধে অবশেষে পুলিশের হাতে গ্রেফতার করা হয়েছে ওই যুবককে।

ধৃতের নাম আশাকুল মোল্লা। তার বাড়ি উত্তর ২৪ পরগনার বারাসাতের কাজীপাড়া এলাকায়। আশাবুলের ২৪ জন স্ত্রীর মধ্যে একজনের অভিযোগের ভিত্তিতে গত বুধবার দত্তপুকুর এলাকা থেকে পুলিশ গ্রেফতার করে ওই অভিযুক্তকে।

পুলিশ সূত্রে খবর, মূলত টাকা এবং সোনা গয়না লুঠ করার লোভেই পরপর বিয়ে করে আশাবুল। রাজ্যজুড়ে নানান জায়গায় রাস্তা মেরামতির কাজ করত সে। প্রাথমিকভাবে ভুয়ো পরিচয়পত্র তৈরি করে ওই এলাকায় থাকতে শুরু করত ওই যুবক। স্থানীয় বাসিন্দাদের জানাত যে সে অনাথ।

এরপর সেইসব জায়গার নানান তরুণীকে নিজের প্রেমের জালে ফাঁসাত আশাবুল। কিছুদিন পর তাদের বিয়ে করত সে। তারপর শ্বশুরবাড়িতেই দিব্যি থেকে যেতে। কয়েকদিন পর টাকা, সোনার গয়না ইত্যাদি লুঠ করে সেখান থেকে পালাত ওই যুবক।

সম্প্রতি সাগরদিঘি এলাকার দুই তরুণীকে একইভাবে নিজের জালে ফাঁসিয়ে বিয়ে করে আশাবুল। প্রতারিত হয়ে তাদের একজনই পুলিশে অভিযোগ জানান। সেই অভিযোগ পেয়েই পুলিশ তদন্ত শুরু করে। এরপরই উঠে আসে চাঞ্চল্যকর তথ্য। জানা যায়, এখনও পর্যন্ত ২৪টি বিয়ে করেছে ওই যুবক।

জানা গিয়েছে, বাংলা তো বটেই, বিহারেও স্ত্রী রয়েছে আশাফুলের। প্রত্যেকের থেকেই একই পদ্ধতিতে টাকা, গয়নাগাটি চুরি করে পালাত সে। কিন্তু শেষরক্ষা হল না। গত বুধবার দত্তপুকুর এলাকা থেকে ওই যুবককে গ্রেফতার করে পুলিশ। আশাফুলের বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা রুজু করবে পুলিশ।

Related Articles

Back to top button