রাজ্য

‘ফিরে যাও বিজয়বর্গীয়’, বিজেপি শীর্ষ নেতার বিরুদ্ধে পোস্টারে ছয়লাপ কলকাতা!

বঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে ব্যাপক বিপর্যয়ের পর রীতিমতো ভেঙে চৌচির রাজ্যের বিজেপি শিবির। একের পর এক নেতা দলত্যাগ করছেন। রাজ্য বিজেপির শিবির ছেড়ে বেরিয়ে এসেছেন মুকুল রায়।

এরইমধ্যে এবার বিজেপি শিবিরের অস্বস্তি আরও বাড়িয়ে কৈলাস বিজয়বর্গীয়’র বিরুদ্ধে পড়ল পোস্টার।

জানা গিয়েছে, গোটা ভিআইপি রোড চত্বর জুড়ে এই পোস্টারে ছয়লাপ হয়ে গেছে। এর পিছনে উদ্দেশ্য হিসেবে বলা হচ্ছে, যাতে এয়ারপোর্ট দিয়ে বেরিয়ে শহরে ঢোকার সময় রাজ্য বিজেপির পর্যবেক্ষকের চোখে এই পোস্টারগুলো পড়ে।

কী লেখা হয়েছে ওই পোস্টারে? ওই পোস্টারে তাঁকে কটাক্ষ করে ‘TMC Setting Master’ বলে লেখা হয়েছে। আর এই পোস্টার থেকে আরও স্পষ্ট, একুশের হাইভোল্টেজ নির্বাচনে বিজেপির বিশাল প্রচার প্রচারণার পর‌ও ব্যাপক ভরাডুবিতে রাজ্য বিজেপির অন্দরেই ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে কৈলাস বিজয়বর্গীয়’র বিরুদ্ধে।

বিধানসভা নির্বাচনে হারের পর বিজেপি নেতা তথাগত রায় সরাসরি আক্রমণ করেছিলেন দিলীপ ঘোষ ও কৈলাস বিজয়বর্গীয়কে।  মুকুল রায় বিজেপির সঙ্গ ছাড়ার পর ফের তথাগতর নিশানায় উঠে আসেন কৈলাস।

ত্রিপুরার প্রাক্তন রাজ্যপাল টুইটে তাঁকে ‘ভোদা বিড়াল’ বলে কটাক্ষ করেন। সেখানে লেখা ছিল, “মমতা পিসি এই ভোদা বিড়ালটাকে তৃণমূলে নিয়ে নাও, মালটা বন্ধুকে না পেয়ে হতাশ হতে পারে। সারাদিন মুকুলের সাথে ফিস/ফিস গুজ/গুজ করত।”

প্রসঙ্গত, মুকুল-কৈলাসের ছবি পোস্ট করে এই টুইটটি করেছিলেন বিজেপি কর্মী দিবাকর দেবনাথ। তা রিটুইট করেছেন তথাগত রায়। লিখেছেন, “দলের প্রতি বিশ্বস্ত এক বিজেপি কর্মীর টুইটটিকে ইংরেজিতে অনুবাদ করছি। এতে আমি কিছু যোগও করব না, আর কিছু বাদও দেব না।”

আর এবার বাদবাকি বিজেপি নেতা-কর্মীদের নিশানাতেও কৈলাস। হেস্টিংস বা ভিআইপি রোডের উপর যেসব পোস্টার পড়েছে তাতে দেখা গেল, মুকুল-কৈলাসের আলিঙ্গনরত একটি ছবি। তার নিচে লেখা – ‘ফিরে যাও বিজয়বর্গীয়’, ‘TMC Setting Master’। অর্থাৎ বঙ্গে আশানুরূপ ফলাফল না হওয়ার জন্য রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব কার্যত কেন্দ্রীয় নেতাদেরই দায়ী করছেন। আর সেই তালিকায় সবচেয়ে বড় নাম কৈলাস বিজয়বর্গীয়। বিগত বেশ কিছু বছর ধরে, পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির পর্যবেক্ষকের কাজ করছেন তিনি। ‌বাংলায় সংগঠন তৈরীর কাজে ব্যর্থ বলেই ধরা হচ্ছে তাঁকে। একাধিক তৃণমূল নেতাকে বিজেপিকে নিয়ে আসাতেই ভরাডুবি হয়েছে।  আর এই কাজের নেতৃত্বে ছিলেন কৈলাস। আর তাই এইভাবে ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ করছে বিজেপি রাজ্য নেতৃত্ব।

Related Articles

Back to top button