সব খবর সবার আগে।

আজ‌ই কি তৃণমূলের সঙ্গে সঙ্গ ত্যাগ বিদ্রোহী রাজীবের? বিকেলে তাঁর ফেসবুক লাইভ নিয়ে চড়ছে উত্তেজনার পারদ!  

তিনি রাজীব ব্যানার্জি। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের বনমন্ত্রী। চারদিন আগেই নিজের ফেসবুক পোস্টে ১৬ই জানুয়ারি বিকেলে ফেসবুক লাইভ করার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য,শুভেন্দু অধিকারীর দলবদলের জল্পনার সময় থেকেই বঙ্গ রাজনীতিতে যে আরেকটি নাম আলোড়ন ফেলেছিল সেটি রাজীব ব্যানার্জির। শুভেন্দু অনুগামীদের মতো রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় পোস্টার পড়েছিল রাজীব অনুগামীদের। দলের বিরুদ্ধে বারবার ভিন্ন সুরে কথা বলেছেন তিনি। দলের মধ্যে থেকেই শাসকের অস্বস্তি বাড়িছেন তিনি।

তাঁকে নিয়ে উল্টো ছবি দেখা গেছে বিজেপি শিবিরে। যখন অন্যান্য তৃণমূল নেতাদের কড়া ভাষায় আক্রমণ করছেন বিজেপি নেতারা, তখন একমাত্র তাঁর বিষয়ে প্রশংসা শোনা গেছে বিজেপির প্রদেশ অধ্যক্ষ দিলীপ ঘোষের গলায়। আর তাতেই বেড়েছে জল্পনা, গুঞ্জন। তাহলে কি বিধানসভা নির্বাচনের প্রাক্কালে তৃণমূলের সঙ্গ ত্যাগ করতে চলেছেন রাজীব? সদুত্তর যদিও এখনও মেলেনি।

তবে বঙ্গ রাজনীতিতে শুভেন্দু অধিকারীর পরে চর্চা অব্যাহত রেখে বনমন্ত্রী রাজীব বন্দোপাধ্যায় এবার সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছতে সাহায্য নিচ্ছেন সোশ্যাল মিডিয়ার। তাঁর তৃণমূল ত্যাগের জল্পনার মধ্যেই শনিবার বিকেলে ফেসবুক লাইভ করবেন মন্ত্রী রাজীব ব্যানার্জি। আর তার আগে লাইভে তিনি কী বলতে পারেন তা নিয়েই বঙ্গ রাজনীতিতে এখন জল্পনার পারদ তুঙ্গে। এরই মধ্যে তৃণমূল সূত্রের খবর, রাজীবের সঙ্গে দলের বিচ্ছেদ প্রায় পাকা। তাই তাঁর সঙ্গে আর নতুন করে যোগ করবেন না দলের নেতারা।

সূত্রের খবর, শনিবারের ফেসবুক লাইভে সাধারণ মানুষের সঙ্গে আলাপচারিতা করবেন রাজীববাবু। বোঝার চেষ্টা করবেন মানুষের মন। সাধারণ মানুষের প্রশ্নের জবাবও দিতে পারেন তিনি। সেক্ষেত্রে তাঁর দলের বিরুদ্ধে ফের মুখ খোলার সম্ভাবনাও উড়িয়ে দেওয়া যায় না l

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, বিগত কয়েক মাস ধরেই দলের সঙ্গে দূরত্ব তৈরি করেছেন রাজীব। শুভেন্দুর মতোই তাঁকেও দলীয় কর্মসূচিতে দেখা যায় না।  গত ৪টি মন্ত্রিসভার বৈঠকেও অনুপস্থিত ছিলেন তিনি। রাজীবের মন বুঝতে তাঁর সঙ্গে ২ দফায় রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। কিন্তু মেলেনি সমাধান সূত্র‌।

সূত্রের খবর, লক্ষ্মী রতন শুক্লার মতই হাওড়ার রাজনীতিতে অরূপ রায়ের প্রতিপত্তি মেনে নিতে পারছেন না রাজীব‌ও। দলে থেকে অরূপ রায়ের বিরুদ্ধে লড়াই অসম্ভব বুঝে তৃণমূল ছাড়তে চলেছেন মন্ত্রী। এই পরিস্থিতিতে আজকে তাঁর ফেসবুক লাইভ যে যথেষ্টই প্রাসঙ্গিক তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

You might also like
Comments
Loading...