রাজ্য

‘খুব ভালোভাবে চিনি না, তবে বেশ বড় নেতা মনে হয়’, শুভেন্দু অধিকারী সম্পর্কে অকপটে রূপা গঙ্গোপাধ্যায়

আজ, সোমবার অর্থাৎ সপ্তাহের প্রথমদিনেই রাজ্যসভায় সাংসদ হিসেবে কার্যকালের মেয়াদ শেষ হচ্ছে তাঁর। তবে এর আগে এক সংবাদমাধ্যমে দিলীপ ঘোষ থেকে শুরু করে সুকান্ত মজুমদার, শুভেন্দু অধিকারী সম্পর্কে অকপটে কথা বললেন বিজেপি নেত্রী রূপা গঙ্গোপাধ্যায়।

তাঁকে প্রশ্ন করা হয় যে দিলীপ ঘোষ নাকি সুকান্ত মজুমদার, বিজেপির রাজ্য সভাপতি হিসেবে কার প্রতি আস্থা বেশি তাঁর? রূপা গঙ্গোপাধ্যায় জানান যে দিলীপ ঘোষ বিজেপির রাজ্য সভাপতি হওয়ার কয়েক বছরের মধ্যেই তাঁকে পরিবর্তন করার আওয়াজ উঠেছিল দলের অন্দরে। তবে তিনি এর বিরোধিতা করেছিলেন।

রূপার মতে, কাউকে যদি কোনও দায়িত্ব দেওয়া হয়, তাহলে তাঁকে কাজ করার জনু সময়টুকু দেওয়া উচিত। সুকান্ত মজুমদার সম্পর্ক তাঁর সেই একই মত। তাঁর বিশ্বাস সুকান্ত মজুমদারও পারবেন।

এরপরই তাঁর দিকে ছোঁড়া হয় শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে প্রশ্ন। এর উত্তরে তিনি বলেন, “ওনাকে আমি খুব ভালোভাবে চিনি না। তবে খুব বড় নেতা মনে হয়”। রাজ্য বিজেপির সাধারণ সম্পাদক (সংগঠন) অমিতাভ চক্রবর্তীর সম্পর্কে বিজেপি নেত্রীর মন্তব্য, “আমার সঙ্গে সব সময় ভালো ব্যবহার করেছেন”।

এখানেই শেষ নয়। এদিন অনুপম হাজরা সম্পর্কে তাঁকে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন যে বঙ্গ বিজেপিতে তিনি কাজ করার কতটা সুযোগ পেয়েছেন, তা তাঁর জানা নেই। আর দলের প্রাক্তন নেতা বাবুল সুপ্রিয় সম্পর্কে তাঁর মন্তব্য, “বড্ড তাড়াহুড়ো করে ফেলল। আর একটু সময় দিতেই পারত। খুব তাড়াহুড়ো করে ফেলেছে। আমার খুব মন খারাপ হয়েছিল”।

Related Articles

Back to top button