রাজ্য

‘আমার নাম করে কেউ সম্পত্তি বাড়াবে আমি সহ্য করব না’, তৃণমূলের দুর্নীতি ইস্যু নিয়ে বিস্ফোরক তৃণমূল বিধায়ক শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়

রাজ্য সরকার এখন নানান দুর্নীতিতে (corruption) বিদ্ধ। নানান দুর্নীতিতে নাম জড়িয়েছে তৃণমূলের (TMC) একাধিক নেতা-মন্ত্রীর। এর জেরে এখন কোণঠাসা ঘাসফুল শিবির। পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে নানান দুর্নীতির কালিমায় লিপ্ত শাসক দল। এই কারণে এই আবহে এবার নিজের ভাবমূর্তি স্বচ্ছ রাখার চেষ্টা করছেন তৃণমূল নেতারা। এবার দুর্নীতি প্রসঙ্গে বিস্ফোরক খড়দহের তৃণমূল বিধায়ক শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় (Sovandeb Chatterjee)।  

গতকাল, রবিবার খড়দহের মহিষপোতা এলাকায় এক দলীয় কর্মসূচিতে অংশ নেন শোভনদেববাবু। এই সভামঞ্চে দাঁড়িয়ে শোভনদেব বলেন, “আমার নাম করে কেউ প্রভাবশালী হবে আমি বরদাস্ত করব না”। সোদপুর ঘোলা মহিষপোতা অঞ্চলে দলীয় এক অনুষ্ঠানে শোভন বলেন, “আমাকে ব্যবহার করে কেউ সম্পত্তি বাড়াক, আমি সেটা চাই না”।

এদিন সভায় উপস্থিত দলীয় কর্মীদের উদ্দেশে শোভনদেববাবু বলেন, “আবারও আপনাদের কাছে বলছি প্লিজ প্লিজ প্লিজ, আপনারা আমাকে ভোট দিয়েছেন, নির্বাচনে জয়ী করেছেন, আপনারা আমার জীবনযাত্রার ওপর নজুর রাখুন। আমি কেমন আছি, সেটা খেয়াল রাখুন”।

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, এই কথার মাধ্যমে শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় আদতে বলতে চেয়েছেন যে কোনও জনপ্রতিনিধির জীবনযাত্রায় যদি হঠাৎ করে পরিবর্তন আসে, তাহলে তা খেয়াল রাখতে হবে সাধারণ মানুষকেই।

তৃণমূল বিধায়কের কথায়, “আপনারা ভোট দিয়েছেন আমাকে, আমি কেমন আছি দেখবেন না? আমি খড়দহের বিধায়ক বলে আমি এখানকার মানুষের জন্য কাজ করছি না, আমি খড়দহের বিধায়ক বলে আমার সম্পত্তি বাড়ানোর চেষ্টা করছি”।

এরপরই একটি ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য করেন শোভনদেব বন্দ্যোপাধ্যায়। বলেন, “যার কিছু ছিল না, সে হঠাৎ করে সম্পত্তির মালিক হয়ে গেল। একজন বাসের কনডাক্টর, সে ৫০ বিঘার মালিক হয়ে গেল। এ কখনও সম্ভব হয়?” তাঁর প্রশ্ন, “কোথা থেকে হয়, কে দিচ্ছে টাকা”?

বলে রাখি, সম্প্রতি এমন কিছু ব্যক্তির নাম উঠে এসেছে যাদের মধ্যে কেউ বা একসময় ছিলেন রঙ মিস্ত্রি, কেউ সামান্য ট্রান্সপোর্টার তো কেউ বা আবার প্যারা টিচার। এরা সকলেই কোনও না কোনও প্রভাবশালী তৃণমূল নেতার ঘনিষ্ঠ বলেই পরিচিত। দেখা গিয়েছে, আজকের দিনে তাদের কোটি কোটি টাকার সম্পত্তি। এইসব ব্যক্তির গতিবিধির উপর নজর রয়েছে ইডি-সিবিআইয়ের। এর জেরেই এখন শাসক দলের প্রথম সারির নেতারা নিজেদের ভাবমূর্তি স্বচ্ছ করতে উঠেপড়ে লেগেছেন।

Related Articles

Back to top button