রাজ্য

কলকাতা বিমানবন্দরের চেয়েও বড় বিমানবন্দর হবে রাজ্যে, জমির খোঁজে বসল বৈঠক, কোথায় হবে রাজ্যের চতুর্থ বিমানবন্দর?

রাজ্যে আর একটি বিমানবন্দর করার সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার। চতুর্থ বিমানবন্দরটি হবে বর্তমান বিমানবন্দর নেতাজি সুভাষ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের থেকেও আর বড়। এই বিষয়ে জমি খোঁজার জন্য দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলা প্রশাসনকে নির্দেশ দেন মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী।

এই নির্দেশ পাওয়ার পরই কাজে নেমে পড়েছে জেলা প্রশাসন। আজ, শুক্রবারই ভাঙ্গড়-দুই বিডিও অফিসে জমির সন্ধান করতে জেলা প্রশাসন ও পঞ্চায়েত প্রতিনিধিদের মধ্যে চলছে বৈঠক।

নবান্ন চায় এই চতুর্থ বিমানবন্দরটি কলকাতার কাছাকাছি কোথাও হোক। তাতে শহরের সঙ্গে বিমানবন্দরের যোগাযোগ সহজ হবে। তবে যেহেতু এই বিমানবন্দরটি কলকাতার বর্তমান বিমানবন্দরের থেকেও বড় হবে, তাই অনেকটা বেশি ফাঁকা জায়গার প্রয়োজন।

তাছাড়া, শুধুমাত্র বিমানবন্দরের জন্য ফাঁকা জায়গা পেলেই হবে না, বিমানবন্দরের আশেপাশেও যাতে ফাঁকা জায়গা থাকে, তাও দেখা দরকার। কারণ বিমানবন্দরকে কেন্দ্র করে শহর গড়ে ওঠে। প্রাথমিকভাবে জেলা প্রশাসনের তরফে মনে করা হচ্ছে, এতটা ফাঁকা জায়গা ভাঙ্গড়ে পাওয়া যেতে পারে।

কিছু বছর আগেই কলকাতা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরকে আধুনিকীকরণ করা হয়েছে বটে কিন্তু তাও এখানে বেশি সংখ্যক বিমান চলাচল করে না। রাজ্য সরকার অনেক চেষ্টা করেছে, কিন্তু তাও অনেক আন্তর্জাতিক বিমান সংস্থা রাজি হয়নি। বিশেষজ্ঞদের মতে, বিশ্বায়নের যুগে শিল্পের ক্ষেত্রে পরিকাঠামো উন্নত করতে আধুনিক বিমানবন্দরের দরকার।

কিন্তু কলকাতার বর্তমান বিমানবন্দরে সর্বাধুনিক সুযোগ-সুবিধা নেই। এই কারণে নতুন বিমানবন্দরের পরিকল্পনা করা হচ্ছে রাজ্যের তরফে। চলতি বছরের এপ্রিল মাসে রাজ্যের মেগা শিল্প সম্মেলন বেঙ্গল গ্লোবাল সামিট রয়েছে। এখানেই এই ন্তুন বিমানবন্দর নিয়ে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা করবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

প্রাথমিকভাবে সাড়ে সাত হাজার একর জমি চিহ্নিত করার পরিকল্পনা করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। সেই অনুযায়ী, দক্ষিণ ২৪ পরগণার জেলা প্রশাসন একটি রিভিউ রিপোর্ট জমা করবে। এই বিষয়ে ভাঙ্গড়ের তৃণমূল নেতা আরাবুল ইসলাম জানান, “আজকে জানলাম এখানে বিমানবন্দরের জন্য জমি নেওয়া হবে। কিন্তু এখানে এত ফাঁকা জমি কোথায়”?

Related Articles

Back to top button