সব খবর সবার আগে।

‘দলের বিরুদ্ধে মুখ খুলে কোনওভাবেই বিতর্ক তৈরি করা যাবে’, তৃণমূল সাংসদদের কড়া সতর্কবার্তা সুদীপের

শাসকদলের অন্দরে বিতর্ক যেন থামতেই চাইছে না। সদ্যই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ব্যক্তিগত মতামতের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছিলেন কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর কথায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অন্য কাউকে নেতা বলে মানতে নারাজ তিনি। তাঁর এই মন্তব্যের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়ে অভিষেকের পাশে দাঁড়ান দলের নানা নেতা-সাংসদরা। এবার সকল সাংসদদের উদ্দেশ্য কড়া সতর্কবার্তা দিলেন সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়।

দলের অন্দরের খবর অনুযায়ী, বেশ কিছু তৃণমূল সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে দলের সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে চিঠি লেখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। একথা জানার পরই তাদের এই ধরণের কাজ থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দেন সুদীপ। হোয়াটসঅ্যাপে সতর্কবার্তা পাঠিয়ে বলা হয়, “প্রকাশ্যে মুখ খুলে বিতর্ক তৈরি করা যাবে না”। এও বলা হয় যে দলের অন্দরের বিবাদ দলেই মেটাতে হবে।

এই সতর্কবার্তা প্রাথমিকভাবে সাংসদ অপরূপা পোদ্দারকে পাঠানো হলেও পরে তা সকলকেই পাঠানো হয়। এতে লেখা রয়েছে যে তৃণমূল সুপ্রিমোকে কোনও চিঠি পাঠানো যাবে না। প্রকাশ্যে দলের বিরুদ্ধে মুখ খোলা যাবে না।

বিতর্কের সূত্রপাত শ্রীরামপুরের সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের মন্তব্যকে ঘিরে। কিছুদিন আগেই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন যে করোনা পরিস্থিতিতে দু’মাস মেলা-ভোট বন্ধ রাখা উচিত। নিজের সংসদীয় এলাকায় করোনা মোকাবিলায় কিছু পদক্ষেপও নেন তিনি। তাঁর এই পদক্ষেপ ভালো চোখে দেখেন নি কল্যাণ। এমনকি, অভিষেকের ওই মন্তব্যকে নিয়েও তাঁকে তোপ দাগেন তিনি।

কল্যাণ স্পষ্ট জানান যে অভিষেক সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদকের পদে রয়েছেন আর ওই পদে থেকে কেউ কোনও ব্যক্তিগত মন্তব্য প্রকাশ করতে পারেন না। কল্যাণের এই মন্তব্যের বিরুদ্ধে মুখ খোলেন অপরূপা পোদ্দার থেকে শুরু করে কুণাল ঘোষ, মদন মিত্ররা।

You might also like
Comments
Loading...