রাজ্য

‘অপা সিন্ডিকেট ধরা পড়েছে, কেষ্ট গেছে, ভাইপোও যাবে, পিছন ফিরে দেখবেন ববি-অরূপও নেই’, মমতাকে ফের বেলাগাম আক্রমণ শুভেন্দুর

পার্থ চট্টোপাধ্যায় (Partha Chatterjee) ও অনুব্রত মণ্ডল (Anubrata Mandal) গ্রেফতার হওয়ার পর থেকেই বিরোধী দলগুলি নানানভাবে শানিয়ে আসছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) ও রাজ্য সরকারকে। মমতাকে তোপ দাগতে কোনও মুহূর্ত বাদ যান না রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari)। গত রবিবার বেহালার এক সভা থেকে বিজেপিকে (BJP) তোপ দেগেছিলেন মমতা। এবার ফের নিজের চেনা ধাঁচেই মমতাকে ফের আক্রমণ শানালেন শুভেন্দু।

রবিবারর সভা থেকে মমতা বলেছিলেন, “কাল যদি সিবিআই -ইডি আমার বাড়িতে যায় আপনারা কী করবেন? সকলে রাস্তায় নামবেন তো? গণতান্ত্রিকভাবে আন্দোলন করবেন তো”? এমন আবহে এবার এর পালটা আক্রমণ করলেন শুভেন্দু অধিকারী। তিনি বলেন, “সেদিন ঘনিয়ে আসছে, যেদিন কেউ আর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পিছনে থাকবে না”।

গতকাল, সোমবার উলুবেড়িয়ার একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। এই সভা থেকে তিনি বলেন,“অপা সিন্ডিকেট ধরা পড়েছে। কেষ্ট গেছে, ভাইপোরও সময় আসছে। প্রস্তুতি নিন, তৈরি হেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পিছন ঘুরে দেখবেন ববি, অরূপও থাকবে না। তাঁর পিছনে কেউ থাকবে না। সেই দিন আসছে”।

এখানেই শেষ নয়। এদিন ফের একবার শুভেন্দু বলেন যে ২০২৪ সালে লোকসভা ও বিধানসভা নির্বাচন একসঙ্গেই হবে। দলীয় কর্মীদের উদ্দেশে শুভেন্দুর বার্তা, “জোট বাঁধুন, তৈরি হোন। সামনের দিন আসছে জোর লড়াই করার। ২৪-এ একসঙ্গে নির্বাচন হবে। বাংলায় রাষ্ট্রবাদী সরকার তৈরি হবে। তখন আর তিরঙ্গা যাত্রার জন্য পুলিশের অনুমতি লাগবে না”।

বেহালার সভা থেকে অনুব্রতর প্রশংসা করে মুখ্যমন্ত্রী বলেছিলেন, “আমি একদিন কেষ্টকে জিজ্ঞাসা করলাম, তুই তো কিছুই চাস না। ওকে এমএলএ হতে বলুন, ও হবে না। ওকে এমপি হতে বলুন হবে না। আমি ওকে অনেকবার বলেছি, রাজ্যসভায় যা। তাও যাবে না”।

এদিন উলুবেড়িয়ার সভায় মমতার এই বক্তব্য নিয়েও তোপ দাগেন নন্দীগ্রামের বিধায়ক। বলেন, “কেষ্টকে রাজ্যসভাতে পাঠাতে চাইলাম, গেল না। যাবে কী করে? কেষ্ট তো নাম লিখতেও জানে না, পড়তেও জানে না। আর এটা স্বাধীনতা দিবসের বক্তব্য? প্রধানমন্ত্রীকে তুই বলছে মুখ্যমন্ত্রী। তারপর আমাকে নিয়ে যা বলেছে, তার উত্তর আমি ঠিক সময়ে সুদ আসলে ফিরিয়ে দেব”।

Related Articles

Back to top button