রাজ্য

বিধানসভায় মুখ্যমন্ত্রীর ঘরে চায়ের আমন্ত্রণে শুভেন্দু, ‘ভাই’ বলে সম্বোধন করলেন মমতা, কোন নয়া সমীকরণের ইঙ্গিত রাজ্য-রাজনীতিতে?

এমনিতে দু’জন দু’জনকে সবসময়ই বাক্যবাণে বিঁধে থাকেন। একে অপরকে আক্রমণ শানাতে কসুর করেন না কেউই। কিন্তু আজ, শুক্রবার এক অনন্য ঘটনার সাক্ষী থাকল বিধানসভা (West Bengal Assembly)। এদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) ঘরে গেলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari)। জানা গিয়েছে, শুভেন্দুকে চায়ের আমন্ত্রণ করেছিলেন মমতা। এদিন নিজের বক্তব্যে শুভেন্দুকে ‘ভাই’ বলেও সম্বোধন করেন তিনি। এই ঘটনা রীতিমতো নাড়িয়ে দিল বিধানসভায় উপস্থিত সকলকে।

নতুন রাজ্যপাল সিভি আনন্দ বোসের শপথগ্রহণ ঘিরে রাজ্য রাজনীতি নতুন করে সরগরম হয়। শুভেন্দু শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে যোগ না দিয়ে দায় ঠেলেন মুখ্যমন্ত্রীর দিকে। এর ঠিক দু’দিন পরই বিধানসভায় দু’জনের সাক্ষাৎ। তবে খুব অল্প সময়ের জন্য। মিনিট চারেক শুভেন্দু ছিলেন মমতার ঘরে। এদিন শুভেন্দুর সঙ্গে ছিলেন অশোক লাহিড়ী, অগ্নিমিত্রা পাল ও মনোজ টিগ্‌গা।

এই সাক্ষাৎ নিয়ে মমতা বলেন, “শুভেন্দুকে চা খেতে ডেকেছিলাম”। শুভেন্দুর কথায়, “এটা সৌজন্য সাক্ষাৎ ছিল। যদিও চা খাওয়া হয়নি”। শুভেন্দু আরও জানান, মুখ্যমন্ত্রী তাঁদের সকলকে চা খেতে বলেছিলেন। কিন্তু বিধানসভায় অধিবেশন চলায় মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে তাঁদেরও ব্যস্ততার কারণে চা খাওয়া হয়নি।

এদিনের এই সৌজন্য সাক্ষাৎ শেষে অধিবেশনে বক্তব্য রাখতে গিয়ে শুভেন্দুকে ‘ভাই’ বলে সম্বোধন করেন মুখ্যমন্ত্রী। এর আগে সংবিধান দিবস নিয়ে শুভেন্দু বক্তব্য রেখেছিলেন। সেই প্রসঙ্গ টেনেই মমতা বলেন, “ভাইয়ের মতো স্নেহ করতাম যাঁকে, তিনি বললেন গণতন্ত্র নিয়ে”। শুভেন্দুর বাবা, তথা কাঁথির সাংসদ শিশির অধিকারীর কথাও শুক্রবার বলেন মমতা। তাঁর কথায়, “দল গঠনের সময় আপনি ছিলেন না। শিশিরদা আমাদের বিরুদ্ধে প্রার্থী হয়েছিলেন। আমি তাকে সম্মান করি”।

বলে রাখি, ২০২০ সালের ডিসেম্বর মাসে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। এর অনেক আগে থেকেই যদিও মমতার সঙ্গে দূরত্ব তৈরি হয়েছিল তাঁর। একুশের বিধানসভা নির্বাচনে নন্দীগ্রাম থেকে মমতার বিরুদ্ধে ভোট লড়াই চালান শুভেন্দু। হারিয়েওছিলেন তৃণমূল সুপ্রিমোকে। এরপর থেকেই নানান সময়ে রাজ্য ও মুখ্যমন্ত্রীকে নানান বাক্যবাণে শানাতে থাকেন বিরোধী দলনেতা।

তবে এমন সৌজন্য বিনিময় এর আগেও দেখা গিয়েছে। বিধানসভায় আগের নির্বাচনে একে অপরের প্রতি নমস্কার জানিয়েছিলেন ম্মতাও শুভেন্দু। তবে ঘরে চা খাওয়ার আমন্ত্রণের মতো ঘটনা এর আগে কখনও ঘটে নি। দু’দিন আগেই যখন রাজ্যপালের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে সম্মানহানির জন্য শুভেন্দু মমতাকে আক্রমণ করেছিলেন, সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে আজ বিধানসভার এই ঘটনা সকলকে বেশ চমকে দিয়েছে।

Related Articles

Back to top button