সব খবর সবার আগে।

নিজের দলের সদস্যা পায়েল, শ্রাবন্তীকে নগরীর নটী আখ্যা! তথাগত রায়কে একপ্রকার ধুয়ে দিলেন শ্রীলেখা-নুসরত-কাঞ্চন

চলতি বছরের বিধানসভা নির্বাচনে সার্বিকভাবে পরাজয় হয়েছে বিজেপির কিন্তু ইতিমধ্যেই শক্তিশালী বিরোধী দল হিসাবে তারা বিধানসভায় নিজেকে প্রতিষ্ঠা করে ফেলেছে। তবে এইবার ভোটে যেসকল তারকা প্রার্থীরা দাঁড়িয়ে ছিলেন তাদের মধ্যে হিরণ ছাড়া কেউই জয়লাভ করেননি। আর হেরে যাওয়া মহিলা তারকা প্রার্থীদের নিয়েই এবার কুৎসিত মন্তব্য করলেন বর্ষীয়ান বিজেপি নেতা তথা মেঘালয়ের প্রাক্তন রাজ্যপাল তথাগত রায়।

তিনি পায়েল শ্রাবন্তী ও তনুশ্রীকে নগরীর নটী আখ্যা দেন তার পোস্টে এবং নির্বাচনের টাকা নিয়ে তারা মদন মিত্রের সঙ্গে কেলি করে সেলফি তুলেছেন বলেও খোঁচা দেন।কী করে এই নায়িকাদের দলের শীর্ষ নেতৃত্ব টিকিট দিল এই প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়েছেন তথাগত রায়। তবে প্রথমে তিনি পার্নো মিত্রের নাম উল্লেখ করলেও পরে তা সংশোধন করে তনুশ্রীর নাম উল্লেখ করেন নিজের পোস্টে।

আর এই পোস্ট করার পরেই তার বিরুদ্ধে মুখ খুললেন টলিউডের অন্যান্য তারকার যারা সকলেই বিরোধী দলের। সাংসদ অভিনেত্রী নুসরত জাহান নিজের স্বভাব সিদ্ধ ভঙ্গিতেই প্রতিবাদ করেন।নুসরতের বক্তব্য, ”বিজেপি নারীদের কী চোখে দেখে, এই মন্তব্যই তার প্রমাণ। নারীদের প্রতি এতটুকুও সম্মান নেই তাদের, সেই শিক্ষাই নেই। বিজেপি নেতাদের থেকে এর চেয়ে বেশি কিছু আশাও করা যায় না। তবে দলের মহিলা প্রার্থীদের প্রতি এই মন্তব্য চূড়ান্ত অবমাননাকর।”

বামমনস্ক অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র যেমন সোজা বলেছেন যে এইসব অভিনেত্রীরা কি জানতেন না যে বিজেপি মহিলাদের কী চোখে দেখে তাহলে সেই দলে যোগ দিতে গেলেন কেন? এখন তো নিজেরাই লজ্জায় পড়ে গেলেন।

উত্তরপাড়ার বিজয়ী তৃণমূল প্রার্থী অভিনেতা কাঞ্চন মল্লিক বলছেন যেভাবে বিজেপির এই বর্ষীয়ান নেতা নিজের দলের প্রার্থীদের অপমান করলেন তা চূড়ান্ত অসংবেদনশীল।

এর আগেও বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ একটি সংবাদ মাধ্যমের সাক্ষাৎকারের শিল্পীদের রগড়ানি দেওয়ার কথা বলেছিলেন। সেই নিয়ে কম বিতর্ক হয়নি। এখন নিজের দলের মহিলা তারকা প্রার্থীদের নিয়ে কুৎসিত মন্তব্য করে বিতর্ক আরেকধাপ বাড়িয়ে দিলেন তথাগত রায়। যদিও পায়েল শ্রাবন্তীদের কাছ থেকে এখনও কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

You might also like
Comments
Loading...