সব খবর সবার আগে।

WB Election 2021: রুদ্রনীলের উপর হামলা, ব্যানার ছেঁড়ার অভিযোগ, বিজেপি-তৃণমূল সংঘর্ষে রণক্ষেত্র চেতলা

এবারের ভোটে ভবানীপুর বিধানসভা কেন্দ্র থেকে বিজেপি প্রার্থী রুদ্রনীল ঘোষ। গতকাল তাঁর ব্যানাত ছেঁড়াকে কেন্দ্র করে বিজেপি-তৃণমূল সংঘর্ষে রণক্ষেত্র আকার নিল দক্ষিণ কলকাতার চেতলা। এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়ির থেকে ঢিল ছোঁড়া দুরত্বে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে দফায় দফায় চলে অবরোধ, ভাঙচুর করা হয় গাড়ি। একে অপরের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছে দু’পক্ষই।

ঘটনার সূত্রপাত গতকাল বৃহস্পতিবার রুদ্রনীল ঘোষের একটি ব্যানার ছেঁড়াকে কেন্দ্র করে। তৃণমূলই ওই কাজ করেছে বলে অভিযোগ আনে পদ্ম শিবির। এই নিয়ে বিজেপির তরফে দেখানো হয় বিক্ষোভ। এই ঘটনার প্রতিবাদে চেতলা থানায় অভিযোগ করতে যাওয়ার পথে এক দফা উত্তপ্ত হয় পরিস্থিতি। শুরু হয় ইটবৃষ্টি। চেতলা মোড়ের একাধিক গাড়িতে চলে ভাঙচুর। দু’পক্ষই পথ অবরোধ করে দফায় দফায়। এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ায় গোটা এলাকায়।

আরও পড়ুন- রোজভ্যালি থেকে নিয়মিত টাকা যেত তৃণমূলে! চাঞ্চল্যকর তথ্য ফাঁস

এবারের ভোটে নিজের কেন্দ্র ভবানীপুর থেকে না দাঁড়িয়ে নন্দীগ্রাম থেকে ভোটে দাঁড়িয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই কেন্দ্রে আগামী ২৬শে এপ্রিল ভোট।

এই ঘটনায় তৃণমূলের বিরুদ্ধে পিস্তল, লাঠি নিয়ে হামলা ও মহিলাদের ধর্ষণের হুমকি দেখানোর অভিযোগ করেন রুদ্রনীল। তাঁর দাবী, প্রচার সেরে ফেরার পথে তাঁর উপর ও তাঁর দলের কর্মী-সমর্থকদের উপর হামলা চালায় তৃণমূলের কর্মী-সমর্থকরা। এই হামলায় অন্তত ১৫ জন জখম হয়েছে বলে তাঁর অভিযোগ। রুদ্রনীলের কথায়, “পিস্তল, বন্দুক, লাঠি নিয়ে এসে হুমকি দেয় তৃণমূলের গুন্ডারা। প্রায় আ়ড়াইশো জন ছেলে মিলে হামলা চালায়। মহিলাদের ধর্ষণের হুমকিও দেয়। কিছুদিন আগে গোপালপুরেও একই রকম ঘটনা ঘটেছিল। আজ মহিলারা রুখে না দাঁড়ালে ভয়ঙ্কর কিছু হতে পারত। এদের দোষটা কী, শুধু বিজেপি-কে সমর্থনই কী রোষের কারণ”?

আরও পড়ুন- ‘বিজেপি করবেন না, আমাদের বিরোধিতা করলে উচ্ছেদ করে ছাড়ব’, হুমকি তৃণমূল নেতা গৌতম দেবের

তবে এর পাল্টা জবাব দিয়েছে তৃণমূলও। তৃণমূলের মুখপাত্র তাপস রায়ের দাবী, প্ররোচনা দিয়ে এলাকাকে অশান্ত করার চেষ্টা করছে বিজেপি। তিনি বলেন, “অভিযোগ-নালিশের পার্টি হয়ে গিয়েছে বিজেপি। আসলে ওরা লাগাতার প্ররোচনা দিয়ে চলেছে। শান্ত বাংলাকে অশান্ত করার চেষ্টা করছে। ভিন রাজ্য থেকে এখানে লোকজন ঢুকিয়ে বাংলার শান্ত পরিবেশকে অশান্ত করার চেষ্টা করছে”।

You might also like
Comments
Loading...