রাজ্য

‘দ্বিতীয়বার দেখলে তোকে এখানেই গুলি করে দেব’, পুলিশের সামনেই মহিলাকে খুনের হুমকি, অভব্য আচরণ তৃণমূল নেতার

এক মহিলার সম্পত্তি দখল করার অভিযোগ উঠল ভাঙড়ের প্রভাবশালী তৃণমূল নেতা শাহজাহান মোল্লার বিরুদ্ধে। শুধু তাই-ই নয়, ওই মহিলাকে পুলিশের সামনেই খুন করার হুমকি দেন ওই তৃণমূল নেতা। এই ঘটনার ভিডিও এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল। যদিও এই ভিডিওর সত্যতা যাচাই করেনি খবর ২৪x৭।

জানা গিয়েছে, ওই মহিলার নাম তন্দ্রা দাস। ভাঙড়ের চন্দনেশ্বরে তার সাড়ে ১৪ বিঘা জমি রয়েছে। সেখানে বাচ্চাদের একটি স্কুলও ছিল। কিন্তু অভিযোগ, জমি দখলের উদ্দেশ্যে ভাঙড় এক নম্বর ব্লকের তৃণমূল সভাপতি তথা ভাঙড় ১ ব্লকের পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি শাহাজাহান মোল্লার নেতৃত্বে সেই স্কুল ভেঙে দেওয়া হয়।

স্কুল ভাঙতে তন্দ্রা ও তাঁর মা বাধা দিতে গেলে বিষাক্ত স্প্রে করা হয় বলে অভিযোগ। এমনকি, গুলি করে খুনের হুমকিও দেওয়া হয়েছে ওই মহিলাকে। আর সেই হুমকি দিয়েছেন শাহজাহান মোল্লা। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে সেই ভিডিও।

সেই ভিডিও দেখা যাচ্ছে যে তন্দ্রা এক সাদা পাঞ্জাবি-পাজামা পরিহিত এক ব্যক্তির উদ্দেশে বলছেন, “আপনি তো সবসময় লোকজন নিয়ে আসেন। আপনার ভয়ে কেউ খোলে না”। এরপরই ওই সাদা পাঞ্জাবি-পাজামা পরিহত ব্যক্তিকে বলতে শোনা যায়, “একা এলে কী করবি? দ্বিতীয়বার দেখব, তোকে শালা এখানেই গুলি করে রে”। তন্দ্রার দাবী, ওই সাদা পাঞ্জাবি-পাজামা পরিহিত ব্যক্তিই হলেন শাহজাহান মোল্লা। তবে মুখে মাস্ক থাকায়, ভিডিওতে তা স্পষ্ট বোঝা যায়নি।

ভিডিও সৌজন্যেঃ টিভি৯ বাংলা

এদিকে, এই সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন শাহজাহান মোল্লা। তাঁর দাবী, ওই সাদা পাঞ্জাবি-পাজামা পরা ব্যক্তি তিনি নন। তিনি এও দাবী করেন যে সেদিন তিনি ওই এলাকায় যান নি। এই শাহজাহান মোল্লা ক্যানিং পূর্বের বিধায়ক সওকত মোল্লার খুবই ঘনিষ্ঠ। তাঁর বিরুদ্ধেই তন্দ্রা দাসের ভাঙড়ের চন্দনেশ্বরে তার সাড়ে ১৪ বিঘা জমি দখল করার অভিযোগ উঠছে। পুলিশের সামনেই তন্দ্রাকে খুন করার হুমকি দেন তিনি।

তন্দ্রা জানান যে এমন হুমকি এর আগেও দেওয়া হয়েছে তাঁকে। পুলিশ কোনও পদক্ষেপ করেনি। এরপর তিনি আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। তন্দ্রা জানান যে তারা এখন প্রাণ সংশয়ে ভুগছেন। যে কোনও দিন তারা খুন হয়ে যেতে পারেন, এমন আতঙ্ক তাড়া করছে মা ও মেয়েকে।

এই ঘটনা নিয়ে সরব হয়েছে বিরোধীরা। সিপিআইএম নেতা সুজন চক্রবর্তী বলেন, “এইধরনের ঘটনা রাজ্যে প্রায়ই ঘটছে। পুলিশের সঙ্গে হাত মিলিয়েই নেতারা এই কাজ করছে। নেতা, পুলিশ সব মিলেমিশে গিয়েছে”।

এই প্রসঙ্গে বিজেপি নেতা সুনীপ দাস বলেন, “মহিলা মুখ্যমন্ত্রী আমলে পুলিশের সামনেই মহিলাকে গুলি করে খুনের হুমকি দেওয়া হচ্ছে। অথচ পুলিশ কোনও ব্যবস্থা নিচ্ছে না” ।

Related Articles

Back to top button