রাজ্য

বিরল ঘটনা! মমতার ছবি, তৃণমূলের পতাকা নিয়েই বিজেপিতে যোগদান ‘সর্বহারা মানুষের সাথী’ তৃণমূল নেতার, বাড়ল উদ্বেগ

গতকালই তৃণমূলের বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। তাঁর হাত ধরেই তৃণমূলের ভাঙনের চিত্রটা আরও বেশি স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। জানা গিয়েছে, আগামী ১৯শে ডিসেম্বরই শুভেন্দু যোগ দেবেন বিজেপিতে। এরপরই শোনা গিয়েছে, শুধু শুভেন্দুই নন, আরও একঝাঁক তৃণমূল নেতা যোগ দেবেন বিজেপিতে। তবে স্বয়ং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি নিয়েই বিজেপিতে যোগ, এ বেশ বিরল ঘটনা।

ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমানে। জানা গিয়েছে, পূর্ব বর্ধমানের তৃণমূল জেলা সহ-সভাপতি শঙ্কর হালদার অন্যান্য নেতাদের মতোই দলবদল করছেন। বুধবারই তিনি যোগ দিয়েছেন পদ্ম শিবিরে। কিন্তু এর মাঝেই ঘটল এক অদ্ভুত ঘটনা। বিজেপিরে যোগদান করছে, কোথায় নরেন্দ্র মোদী, অমিত শাহ-র ছবি থাকবে, তা না, খোদ মুখ্যমন্ত্রীর ছবি নিয়েই শঙ্করবাবু হাজির হলেন পদ্মাসনে বসার জন্য।

এই উলাটপুরাণ সত্যিই বিরল। তৃণমূলের পতাকা, ব্যানার নিয়েই বিজেপি দফতরে হাজির হলেন শঙ্কর হালদার ও তাঁর অনুগামীরা। পোস্টারে লেখা ‘কৃষকদরদি, গরীব দরদি, শ্রমিক দরদি, সর্বহারা মানুষের সাথী”। এই ধরণের ঘটনা স্বভাবতই বেশ উদ্বেগ তৈরি করেছে দুই দলেরই অন্দরে। এমন ঘটনা কেউ যে আগে দেখেনি, এও স্বীকার করেছেন দুই দলেরই সমর্থক। তবে এই ঘটনার পিছনে কী রহস্য লুকিয়ে রয়েছে, কেনই বা এমন কাজ করলেন তারা, এই বিষয়ে শঙ্কর হালদার বা তাঁর অনুগামীরা কোনও মন্তব্য করেননি।

তবে অনেকেই মনে করেছেন, ভবিষ্যতে হয়ত পদ্ম শিবিরেই যোগ দেবেন তিনি। শঙ্করবাবুর এই ঘটনা নিয়ে ইতিমধ্যেই চর্চা শুরু হয়েছে। অনেকেই মনে করছেন, তিনি হয়ত জল মাপতে চাইছেন। দুই দলেই নিজের রাস্তা খোলা রাখার জন্যই এই কাজ, এমনও মনে করেছেন অনেকে। তবে ভবিষ্যতে যাই হোক না কেন, এরকমভাবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি নিয়ে বিজেপিতে যোগদান করার শঙ্কর হালদারের এই ঘটনা নজিরবিহীন হয়ে থেকে যাবে সারা জীবন।

Related Articles

Back to top button