রাজ্য

‘দু-চারটে গরু তো পাচার হতেই পারে’, গরু পাচার কাণ্ডে অনুব্রতর গ্রেফতারি নিয়ে বেফাঁস মন্তব্য উদয়ন গুহর, অস্বস্তিতে শাসক দল

রাজ্যে এই মুহূর্তে গরু পাচার মামলা (cattle smuggling case) নিয়ে পরিস্থিতি উত্তাল। আর এহেন পরিস্থিতিতে এবার বেফাঁস মন্তব্য করে বিতর্ক আরও বাড়িয়ে দিলেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী তথা দিনহাটার বিধায়ক উদয়ন গুহ (Udayan Guha)। বললেন, “কেন্দ্রীয় মন্ত্রী যখন জেল খেটেছেন, সেখানে দু-চারটে গরু তো পাচার হতেই পারে”। তাঁর এমন মন্তব্যকে ঘিরে বেশ চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। বিরোধীরা কটাক্ষ করতেও ছাড়ে নি।

গতকাল, মঙ্গলবার ১৬ই আগস্ট ছিল তৃণমূলের খেলা হবে দিবস। রাজ্যজুড়ে এই দিন উপলক্ষ্যে নানান অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। আলিপুরদুয়ারেও এই খেলা হবে দিবস উপলক্ষ্যে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন হয়। সেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উদয়ন গুহ। আর এই অনুষ্ঠান থেকেই কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী নিশীথ প্রামাণিককে তোপ দাগতে গিয়ে গরু পাচার কাণ্ডের স্বপক্ষেই মন্তব্য করে দিলেন তৃণমূল নেতা।

এদিন উদয়ন বলেন, “কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী নিজে সোনার দোকানে ডাকাতির কেসে ৪২ দিন জেল খেটেছে। বহু পাচারের অভিযোগ রয়েছে। সেসব আর মুখ ফুটে বলতে চাইছি না। সেখানে দু-চারটে গরু পাচার হতেই পারে”।

এরপরই পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও অনুব্রতর পাশে দাঁড়িয়ে উদয়ন গুহ বলেন, “কেউ পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে টাকা পায়নি। কেউ অনুব্রতকে গরু পাচার করতেও দেখেনি। কেন গ্রেপ্তার সেটা সিবিআই আর ইডিই জানে”। তবে তৃণমূল বিধায়কের এহেন মন্তব্যে যে বিতর্ক দানা বেঁধেছে, তা বলাই বাহুল্য।

বলে রাখি, গত মাসেই রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়ি তল্লাশি চালায় ইডি। তাঁকে এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় গ্রেফতার করা হয়। পার্থ-ঘনিষ্ঠ অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের দুটি ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয়েছে ৫০ কোটি টাকা ও কোটি কোটি টাকার গয়না। অর্পিতাকেও গ্রেফতার করে ইডি। আপাতত পার্থ চট্টোপাধ্যায় প্রেসিডেন্সি জেলে রয়েছেন।

অন্যদিকে আবার গত বৃহস্পতিবার বীরভূমের জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের বাড়ি হানা দেয় সিবিআই। গরু পাচার মামলায় গ্রেফতার করা হয় কেষ্টকে। আসানসোল সিবিআইয়ের বিশেষ আদালতের নির্দেশে আপাতত সিবিআইয়ের হেফাজতে নিজাম প্যালেসে রয়েছেন অনুব্রত। এই মামলায় আজ, বুধবার অনুব্রতর মেয়ে সুকন্যাকে জেরা করতে পারে সিবিআই।

Related Articles

Back to top button